শুক্রবার, ডিসেম্বর ৬, ২০১৯

সাফল্যের মুকুটে যুক্ত হলো সিলেটী কন্যা মাহজাবীন হকের নাম

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ২০১৯-০৯-২৫ ০৩:২৪:২৪
image

হ্যামট্রাম্যাক : সাফল্যের মুকুটে যুক্ত হলো আরও একটি নাম। তিনি হলেন সিলেটী কন্যা মাহজাবীন হক।  সেই সঙ্গে সিলেটকে নিয়ে গেলেন এক নতুন উচ্চতায়। এক নতুন মাত্রায়। আরও একবার বিশ্বমঞ্চে তুলে ধরলেন লাল সবুজের পতাকা। যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন তিনি। মাহজাবীন হক এ বছরই মিশিগান রাজ্যের ওয়েইন স্টেইট ইউনির্ভাসিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ব্যাচেলর ডিগ্রী সম্পন্ন করেছেন। তার এমন সাফল্যে মিশিগানে বসবাসরত কমিউনিটির লোকজন গর্ববোধ করছেন। সুপ্রভাত মিশিগানের পক্ষ থেকে তার জন্য রইলো শুভকামনা।
পেইন্টিং ও ডিজাইনে পারদর্শী মাহজাবীন হক ২০০৯ সালে পিতা-মাতার সাথে যুক্তরাষ্ট্রে আসেন। দুবছর নিউ ইয়র্ক সিটিতে ছিলেন। ২০১১ সাল থেকে স্থায়ীভাবে মিশিগানে বসবাস করছেন। সাথে আছেন মা ফেরদৌসী চৌধুরী ও একমাত্র ভাই। ভাইটি বর্তমানে ইউএস আর্মিতে আছে। পিতা সৈয়দ এনামুল হক কর্মসূত্রে দেশে অবস্থান করছেন। তিনি একটি ব্যাংকের সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার। পৈত্রিক নিবাস সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার কদমরসুল গ্রামে।

মাহজাবীন হক ওয়েইন স্টেইট ইউনির্ভাসিটি অধ্যয়নকালে দুই দফায় টেক্সাসের হিউস্টনে অবস্থিত নাসার জনসন স্পেস সেন্টারে ইন্টার্ণশীপ করেছেন। প্রথম দফায় তিনি ডাটা এনালিস্ট এবং দ্বিতীয় দফায় সফটওয়্যার ডেভেলপার হিসেবে মিশন কন্ট্রোলে কাজ করেন। মাহজাবীন হক জানান,  দুই দফায় ৮ মাস ২টি গুরুত্বপূর্ণ বিভাগে কাজ করেন তিনি। এই কাজের মাধ্যমে অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন। সেই সঙ্গে  তিনি অর্পিত দায়িত্ব অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে পালনের চেষ্টা করেছেন বলে জানান। মাহজাবীন হক জানান, নাসা, অ্যামাজনসহ বিশ্বের অনেক খ্যাতনামা  কোম্পানি থেকে  চাকরির অফার আসে। এর মধ্যে তিনি নাসাকেই বেছে নেন। 


মাহজাবীন হক শুধু একজন সফল শিক্ষার্থী-ই নন, তিনি একজন ভালো সংগঠকও। ইউনির্ভাসিটিতে অধ্যয়নকালে ২০১৬ সালে সহপাঠী ও বাঙ্গালী শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠন করেন বাংলাদেশ স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন (বিএসএ)। শুরুতে সেক্রেটারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরের বছর প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। প্রত্যক্ষ ভোটে প্রতি বছর এ নির্বাচন হয়ে থাকে। তিনি প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনকালে ভল্টারিং কার্যক্রম চালু করেন। এই কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীরা কিছু অর্থ উপার্জনের সুযোগ লাভ করেছে।
এদিকে মাহজাবীন হকের ব্যাচেলর ডিগ্রী সম্পন্ন এবং নতুন কর্মস্থল নাসায় যোগদান উপলক্ষে গত রোববার রাতে হ্যামট্রাম্যাক শহরের কাবাব হাউসে এক ডিনার পার্টির আয়োজন করা হয়। এতে তার সহপাঠী, বন্ধু-বান্ধব এবং নিকটাত্মীয়রা উপস্থিত ছিলেন। মাহজাবীন হক ও তার মা ফেরদৌসী চৌধুরী আমন্ত্রিত অতিথিদের অভ্যর্থনা জানান। অতিথিদের নানা রকম আইটেমে রাতের খাবারে আপ্যায়ন করা হয়। সবশেষে মাহজাবীন হকের কেক কাটায় অংশ নেন সকলেই।

 


এ জাতীয় আরো খবর