শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯

মিশিগানে ই-সিগারেটে দ্বিতীয় মৃত্যু

  • সুপ্রভাত মিশিগান ডেস্কঃ
  • ২০১৯-১১-২৮ ২৩:৪৪:২৩
image

ল্যান্সিং : ফুসফুসের বাষ্প সংক্রান্ত আঘাতে মিশিগানে দ্বিতীয় ব্যক্তির মৃত্যু ঘটেছে। ওই ব্যক্তি ই-সিগারেটের ভ্যাপিংজনিত কারণে আহত হয়েছিলেন। মিশিগানের স্বাস্থ্য ও মানবসম্পদ বিভাগ এই তথ্য জানিয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগ গত ২৬ নভেম্বর তার মৃত্যুর বিষয়টি জানতে পারে। মৃত্যুর বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।
স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান চিকিৎসা নির্বাহী ও স্বাস্থ্য সংক্রান্ত উপ-প্রধান ড. জোনেইগ খালদুন বলেন, আমরা দ্বিতীয় মৃত্যুর ঘটনায় গভীরভাবে শোকাহত। আমরা ভ্যাপিংয়ের কারণে ফুসফুস আক্রান্তের বিশেষ কারণ না জানা পর্যন্ত সবাইকে ভ্যাপিং থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিচ্ছি। এই বিষয়ে তদন্তের জন্য স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগকেও রোগীদের সচেতন করার বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন ড. জোনেইগ। তিনি জানান, কয়েক মাস ধরে দেশব্যাপী স্বাস্থ্য আধিকারিকরা ফুসফুসের আঘাতের প্রকোপটি খতিয়ে দেখছেন। এমডিএইচএসের মতে, ২০ নভেম্বর পর্যন্ত রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রসমূহ  মিশিগানে ফুসফুসের আঘাতের ২ হাজার ২শ ৯০টি ঘটনা সনাক্ত করেছে। তাছাড়া চলতি বছরের আগষ্ট থেকে এই পর্যন্ত ভ্যাপিং সংক্রান্ত ফুসফুস রোগে অন্তত ৫৬ জন আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সবাই নিম্ন উপদ্বীপের। তাদের বয়স ১৫ থেকে ৬৭ বছর। অক্টোবর মাসে রাজ্যে ভ্যাপিংয়ে একজনের মৃত্যুর খবর জানা যায়। তিনিও ছিলেন প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ।
এদিকে এমডিএইচএসের চিফ মেডিকেল এক্সিকিউটিভ এবং চিফ ডেপুটি ডা: জোনাই খালদুন বলেছেন, দেশব্যাপী বাষ্প সংক্রান্ত গুরুতর ফুসফুসের আঘাতের নির্দিষ্ট কারণ চিহ্নিত না হওয়া পর্যন্ত সর্বসাধারণকে এই বাষ্প গ্রহণ থেকে বিরত থাকার জন্য আহ্বান  জানিয়েছেন।
এমডিএইচএইচস বুধবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে, বাষ্প ব্যবহারকারীরা শ্বাসকষ্ট, বুকে ব্যথা, কাশি, জ্বর এবং বমিভাবের মতো লক্ষণগুলি দেখা গেলে অবিলম্বে তাদেরকে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। 
উল্লেখ্য, রাজ্য ই-সিগারেট নিষিদ্ধ করেছিল। কিন্তু এক বিচারক গত আগষ্টে রুল জারি করে এবং নিষেধাজ্ঞাকে বাতিল করে দেন। সম্প্রতি রাজ্য ঘোষণা করে যে, সাময়িকভাবে মারিজুয়ানা ভ্যাপিং বিক্রি নিষিদ্ধ থাকবে যতক্ষণ না নতুন রুল অনুযায়ী পরীক্ষা-নীরিক্ষা শেষ না হয়।

Source & Photo: http://detroitnews.com


এ জাতীয় আরো খবর