শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০২০

সরস্বতী পূজার্থীদের আন্দোলন : ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন পেছাল

  • ঢাকা প্রতিনিধি :
  • ২০২০-০১-১৮ ২১:৫৩:২৪
image

ঢাকা : সরস্বতী পূজার্থীদের আন্দোলনের মুখে ঢাকার দুই সিটির ভোটের তারিখ পরিবর্তন করলো নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন ৩০ জানুয়ারির পরিবর্তে ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন (ইসি)। শনিবার (১৮ জানুয়ারি) বিকেল ৪টায় রাজধানীর শের-ই বাংলা নগরের নির্বাচন ভবনে এক অনির্ধারিত বৈঠক এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বৈঠক শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
কে এম নুরুল হুদা বলেন, ‘৩০ জানুয়ারি নির্বাচনের জন্য ঘোষিত তারিখে সরস্বতী পূজা পড়ে যাওয়ায় কারও ধর্মানুভূতিতে যাতে আঘাত না লাগে সে কারণে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। আমরা যখন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করি তখন সরস্বতী পূজার তারিখ ২৯ জানুয়ারি উল্লেখ ছিল। সে কারণে তারিখ নিয়ে সমস্য দেখা দেয়।’ সিইসি আরও বলেন, ‘আমি শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে এসএসসি পরীক্ষা পেছানোর কথা বলেছিলাম, তিনি রাজি হয়েছেন। ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল সেটা পরিবর্তন করে ৩ ফেব্রুয়ারি করা হয়েছে।’
প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা ছাড়াও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও শাহাদৎ হোসেন চৌধুরীসহ (ইসি) সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর এবং উত্তর সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাশেমে ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আব্দুল বাতেন।
প্রসঙ্গত, গত ২২ ডিসেম্বর ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ৩০ জানুয়ারি ভোটগ্রহণের দিন রেখে তফসিল ঘোষণা করেছিল ইসি।ওই দিন দেশব্যাপী হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব সরস্বতী পূজা। এ পূজাকে কেন্দ্র করে নির্বাচন পেছানোর নির্দেশনা চেয়ে ৬ জানুয়ারি হাইকোর্টে রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ। ১৪ জানুয়ারি হাইকোর্ট রিট খারিজ করে দেন। এরপর বিষয়টি নিয়ে আপিল করা হয়। ১৬ জানুয়ারি রিট খারিজের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করা হয়েছে।
এদিকে সরস্বতী পূজার দিন  দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচনের তারিখ পড়ায় নির্বাচন পেছানোর দাবিতে ১৬ জানুয়ারি, বৃহস্পতিবার থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে আমরণ অনশন শুরু করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তাদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। পরে এই নির্বাচন পেছানোর দাবিতে একাট্টা হন সাধারণ শিক্ষার্থী, আওয়ামী লীগ-বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন এবং নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ। এ প্রেক্ষিতে শনিবার বিকালে জরুরি বৈঠকে বসে ঢাকার এই দুই সিটি নির্বাচনের ভোটগ্রহণের তারিখ পিছিয়ে নতুন ওই তারিখ ঘোষণা করল ইসি।


এ জাতীয় আরো খবর