রবিবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০

পূজার সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়লেন সৌম্য

  • ঢাকা প্রতিনিধি :
image

ঢাকা : খুলনার মেয়ে প্রিয়ন্তি দেবনাথ পূজার সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়লেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার সৌম্য সরকার।
বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে জীবনের নতুন ইনিংস শুরু করলেন এ তারকা ক্রিকেটার। জাঁকালো আয়োজনের মধ্যে দিয়ে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সেরে ফেললেন তিনি। 
একই দিন দুপুরে সাতক্ষীরা শহরের মধ্য কাটিয়ার লাল-সবুজ বাড়িতে ঢাক-ঢোল, কাশীর বাদ্য আর উলুধ্বনিতে পরিবার-পরিজনের উপস্থিতিতে সৌম্য সরকারের গায়ে হলুদ হয়। এ সময় হলুদ মাখিয়ে সৌম্য সরকারকে জন্য আশীর্বাদ করেন বাবা-মা, ভাই-বৌদিসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্য এবং প্রতিবেশীরা। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে চারটি প্রাইভেট কার, আটটি মাইক্রো বাস ও ছয়টি বাসের বহরে পাঁচশ বরযাত্রী নিয়ে খুলনার উদ্দেশ্যে রওনা হন সৌম্য। রাত ৮টায় তিনি খুলনায় পৌঁছান। রাত সোয়া ১১টায় অগ্নিকে সাক্ষী রেখে সাত পাকে ঘুরেন বর-কনে দু’জন। এরপর একে অপরে মালা বদল করেন। এ সময় ঢাক ঢোল কাশির বাদ্য আর উলুধ্বনিতে মুখরিত হয়ে ওঠে চারদিক। উৎসব মুখর পরিবেশে সম্পন্ন হয় বিয়ে। এ সময় দুই পরিবারের নিকট আত্মীয়রা আশীর্বাদ করেন নতুন বর-বধূকে। সৌম্য সরকারও সকলের উদ্দেশে তাদের নতুন জীবনের জন্য সকলের কাছে শুভ কামনা প্রার্থনা করেন। সৌম্য সরকারের বাবা অবসরপ্রাপ্ত জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা কিশোরী মোহন সরকার জানান, সনাতন ধর্মীয় রীতি-নীতি মেনে রাত ১১টায় সৌম্যর বিয়ে শেষ হয়েছে। তিনি তাদের নতুন জীবনের জন্য সকলের কাছে আশীর্বাদ কামনা করেছেন। প্রিয়ন্তি দেবনাথ পূজার  বাবা গোপাল দেবনাথ ব্যবসায়ী ও মা মাধবী দেবনাথ গৃহিণী। তাদের বাড়ি খুলনা শহরের টুটপাড়া এলাকায়। পূজা বর্তমানে ‘ও লেভেল’ পড়ছেন ঢাকার একটি কলেজে। তিন বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট।
সৌম্য সরকার বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের একজন গুরুত্বপূর্ণ ওপেনিং ক্রিকেটার। ১ ডিসেম্বর, ২০১৪ তারিখে মিরপুরের শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ একদিনের আন্তর্জাতিকে তার অভিষেক ঘটে। ওই খেলায় তিনি ১৮ বলে চার বাউন্ডারির সাহায্যে ২০ রান সংগ্রহ করেন।  খুব অল্প সময়ের মধ্যেই  তিনি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে যান।

 


এ জাতীয় আরো খবর