বুধবার, জুলাই ১৫, ২০২০

মৃধা ফাউন্ডেশন আয়োজিত চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার ফল প্রকাশ

  • নিজস্ব প্রতিবেদক :
image

ছবি : মৃধা ফাউন্ডেশনের কর্ণধার বিশিষ্ট নিউরলজিস্ট এবং দার্শনিক ডা: দেবাশীষ মৃধা এবং তাঁর সহধর্মিনী চিনু মৃধা।

সাগিনা : মানুষের কল্যাণে কাজ করা মৃধা ফাউন্ডেশন এই লকডাউনের মধ্যেও শিশুদের শিক্ষায় কাজ করে যাচ্ছে। প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের মহামারীর মধ্যে ফাউন্ডেশনটি অনলাইনে চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিল। ফাউন্ডেশনের আহ্বানে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশ, ভারত, কানাডা, যুক্তরাজ্য এবং যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহর থেকে অসংখ্য প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেছে। অবশেষে সেই প্রতিযোগিতার ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে।

ফলাফল প্রকাশ উপলক্ষ্যে ফাউন্ডেশন অংশগ্রহণকারী এবং অভিভাবকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বার্তাও দিয়েছে। বার্তায় ফাউন্ডেশন লিখেছে :
প্রিয় অংশগ্রহণকারী এবং অভিভাবকবৃন্দ,
এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য আপনাদের সকলকে অশেষ ধন্যবাদ। আমরা জানি যে, আপনারা সবাই প্রতিযোগিতার ফলাফল এবং জয়ীদের নাম জানার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন। সেই অপেক্ষার অবসান হয়েছে। তবে ফল প্রকাশের আগে দু’টি কথা না বললেই নয়। প্রত্যেক প্রতিযোগীই খুব ভাল করেছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আমরা প্রতিযোগী পেয়েছি যা সত্যিই আমাদের একইসঙ্গে বিস্মিত ও আনন্দিত করেছে। তবে এটা প্রতিযোগিতা হওয়ায় অনেকের মধ্য থেকে নির্দিষ্ট কিছু প্রতিযোগীকে স্বাভাবিকভাবেই বেছে নিতে হয়েছে। আমরা বিচারকদের ধন্যবাদ জানাই তাদের সময় এবং বিশেষজ্ঞ মতামত দেওয়ার জন্য।
বিচারকরা নির্দিষ্ট মানদন্ডের ভিত্তিতে চিত্রকর্ম এবং লেখা দিয়ে প্রতিযোগী বাছাই করেছেন। তবে সব প্রতিযোগীই ভাল করেছে।
শিল্পকর্মটি চোখের সামনে কতটা আনন্দদায়ক ছিল, কর্মের সামগ্রিক বার্তা এবং এটা করতে কতোটা গুরুত্বের সঙ্গে করা হয়েছে বা কতটুকু প্রচেষ্টা ছিল তা যাচাই করা হয়েছে। লেখার ক্ষেত্রে ধারণা, কতোটা সংগঠিত ছিল, ব্যাকরণ এবং মৌলিকত্বের বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, নকল অর্থাৎ যেসব লেখার কোনো উৎস উল্লেখ করা হয়নি সেগুলো প্রথমেই বাদ দেওয়া হয়েছে।
সব শিশুই ভাল করায় ‘অনারেবল মেনশন’ নামের নতুন একটা ক্যাটাগরি সৃষ্টি করা হয়েছে। এখন জয়ীদের নাম জানা যাক।
৪-৭ বছর, শিল্প : প্রথম- আরাধ্য্যা মেহতা। দ্বিতীয়- আরিশা হাসান। তৃতীয়- ইরশিয়া বল। ‘অনারেবল মেনশন’- - প্রিয়া দত্ত ও সাফাত তাবরেজ।
৮-১০ বছরের শিল্প : প্রথম- স্বর্ণিকা চৌধুরী। দ্বিতীয়- আরিয়ান মেহতা। তৃতীয়- জয়ব্রতো চৌধুরী। ‘অনারেবল মেনশন’ - নীল লাক্কুন্দি পাটওয়ার্দন, অ্যাংকুর দেব মুগ্ধা, অবনীতা সাহা ও আতিফ সিদ্দিক।
১১-১৪ বছর, শিল্প : প্রথম- সামান্থা চৌধুরী। দ্বিতীয়- সায়ান তাবরেজ। তৃতীয়- সানভী জিঙ্গিলপ্লেম।  ‘অনারেবল মেনশন’-- আরিত দাস, অরোধিটি দত্ত ও স্নেহা দে।
১৫-১৮ বছর, শিল্প : প্রথম- মৌমিতা চৌধুরী। দ্বিতীয়- লেক্সি সিডেল, তৃতীয়- এমডি লাবিব হক। ‘অনারেবল মেনশন’-মাহুম হাকিম, এলা ব্রিগস, কারি ব্রাউন ও অদিতি দেব মৌমি।
১১-১৪ বছর, রচনা : প্রথম- মৌমিতা হাওলাদার। দ্বিতীয়- সামান্থা চৌধুরী। তৃতীয়- নিলয় ইসলাম। ” ‘অনারেবল মেনশন’-শ্রেয়া ঘোষ, ইমানি চৌধুরী ও অঙ্কিতা সিনহা।
১৫-১৮ বছর, রচনা : প্রথম- রিদ্ধিতা সাহা। দ্বিতীয়- ফাতেমা সাইদা বিন্তি। তৃতীয়- সুস্মিতা দাস।
সমস্ত বিজয়ীদের পুরষ্কারের জন্য ই-মেইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করা হবে! সমস্ত অংশগ্রহণের প্রশংসাপত্রও ই-মেইলের মাধ্যমে প্রেরণ করা হবে।
উল্লেখ্য, মৃধা  ফাউন্ডেশন নামের এই সংস্থাটি মিশিগান রাজ্যের সাগিনা সিটিতে অবস্থিত। মূলত: বিশ্বব্যাপী শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতির প্রসার এবং মানুষের জীবন মানের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে এই ফাউন্ডেশন। এছাড়া মৃধা ফাউন্ডেশন স্ব-স্ব ক্ষেত্রে অবদানের জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে এওয়ার্ড প্রদান করে থাকে প্রতি বছর।


এ জাতীয় আরো খবর