সোমবার, নভেম্বর ২৩, ২০২০

জাগরণের কবি পার্থ সারথি চৌধুরীর আজ প্রয়াণ দিবস

  • মনসুর আহমেদ :
image

ছবি : অলংকরণ - আশিষ আচার্য। মূলছবি - তোফাজ্জল সোহেল।

"বিশৃঙ্খল শব্দের ভারে আমাকে নত করোনা
শাণিত তরবারি স্বয়ং বিধিয়ে দাও
প্রবাহমান নিভৃত সাগরের বিশালতায়
আমি কিছু বলবোনা তোমায়।

উপদ্রুত কৃষক যেমন পূর্ণতা পায় না
করুণার অপার বর্ষণে, তেমনি আমি একজন
কৃষকের মতো চাইনে তোমায়
ব্যঞ্জনার দুঃখময় অব্যয় উচ্ছাস।"
                        - পার্থ সারথি চৌধুরী

কবি, সাংবাদিক, গবেষক পার্থ সারথি চৌধুরীর আজ সপ্তম প্রয়াণ দিবস। ২০১২ সালের ২২ অক্টোবর হৃদরোগে আক্রান্ত হলে চিকিৎসার উদ্দেশ্যে ঢাকা নিয়ে যাওয়ার পথে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
পার্থ সারথি চৌধুরী ১৯৫১ সালের ২৫ ডিসেম্বর হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জের উপজেলার আগনা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। কৈশোর বয়স থেকেই তার লেখালেখি শুরু হয়।  ১৯৭২/৭৩ সালে তিনি তিনি বৃহত্তর সিলেট সাহিত্য অঙ্গণে সক্রিয় সাহিত্য চর্চা শুরু করেন। সত্তর দশকের শেষের দিকে তিনি সাংবাদিতা পেশায়ও সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন সিলেটের "সিলেট বার্তায়"। পরবর্তীতে দেশবার্তা, যুগভেরী, প্রাথ সুরমা, স্বাধিকার, সমাচার, হলিডে, লাল সবুজ, বাংলাবাজার সহ বিভিন্ন পত্রিকায় সাংবাদিকতা করেন। এবং বেশকয়টি পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক এর দায়িত্বও পালন করেন। সম্পাদনা করেছেন বেশকিছু সাহিত্য ম্যাগাজিন। কবি পার্থ সারথি চৌধুরী ১৯৬৮-৬৯ এর গণ অভুত্থানসহ হবিগঞ্জের বিস্তারিত ঐতিহাসিক তথ্য সংগ্রহ লিপিবদ্ধ করেছেন। হবিগঞ্জের সংবাদপত্রের ইতিহাস ও ক্রীড়াঙ্গনের ১শ' বছর গ্রন্থনা করে কল্লোলিত হবিগঞ্জ নামে পান্ডুলিপি তৈরি করেছেন। এছাড়াও তার আরো পরিচয় হলো তিনি ভালো আবৃত্তিকার ও সুবক্তা।  
১৯৮৩ সালে ‘বসন্তে বৈশাখ’ নামে তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ  প্রকাশিত হয়। ১৯৮৪ সালে কাব্যগ্রন্থ ‘শিরিষতলার গাথা’ ও প্রবন্ধগ্রন্থ ‘কাণ্ডকারখানা’ প্রকাশিত হয়। এছাড়াও অনেক গল্প, উপন্যাস, রম্য রচনা, কলাম লিখেছেন তিনি বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায়।
তথ্য সূত্রে জানা যায়, কবি পার্থ সারথি চৌধুরীর সাহিত্যিক বন্ধু ছিলেন কবি নির্মলেন্দু গুণ, অসীম সাহা সহ অসংখ্য জাতীয় গুণীজনরা। 
১৯৭১ সালে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী হাত থেকে দেশকে মুক্ত করতে মহান মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। যুদ্ধ শেষে তিনি আবারো বাংলা সাহিত্যে মনোনিবেশ করেন। সাহিত্যে তার অসামান্য অবদানের জন্য তিনি স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন আব্দুর রউফ স্মৃতি পদক, সুন্দরম সম্মাননা পদক, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের উদ্যেগে সিলেট বিভাগীয় নাট্য উৎসব গুণীজন সম্মাননা ও হবিগঞ্জ সাহিত্য পরিষদ সম্মাননা। 
কবির প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ ‘বসন্তে বৈশাখ’ ২০১৯ সালের অমর একুশে বইমেলায় সাহিত্যকর্মী মনসুর আহমেদ এর উদ্যােগ ও প্রচেষ্টায় আবারও প্রকাশিত হয়।


 

এ জাতীয় আরো খবর