মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯

হ্যামট্রম্যাক শহরে শ্রম দিবসের ইতিবৃত্ত

  • সুপ্রভাত মিশিগান ডেস্কঃ
  • ২০১৯-০৮-৩১ ২১:০৪:২৬
image

হ্যামট্রম্যাক : শ্রমিক দিবসে হ্যামট্রম্যাক  শহরে স্বাগতম। প্রায় চার দশক ধরে জ্যোসেফ ক্যাম্পু মেইন স্ট্রিটে উৎসবের সঙ্গে শ্রমিক দিবস উদযাপন হচ্ছে। আয়োজকরা জানান, এই বছরের সঙ্গে অতীতের শ্রমিক দিবসের পার্থক্য আছে। তাহলো এবারেরটা আরো ভাল হবে। এবারের ৪০তম বার্ষিক উৎসব স্পন্সর করেছে হ্যাচ। এই বছরের উদযাপনে থাকছে রাস্তার উপরে নৌকা বাইচ, শিশু থেকে থেকে বয়স ভেদে সবার জন্য বিভিন্ন জিনিসের সমাহার, ক্যানিফ এবং জোস ক্যাম্পাউয়ের উত্তরপশ্চিমে হুইলহাউস, ফ্রি বাইসাইকেল ব্যবহার এবং এর জন্য পার্কিংয়েরও ব্যবস্থা আছে যা সম্পূর্ণ ফ্রি। আগের মতোই প্রচুর গান, খাবার এবং মজার বা কৌতুকের আয়োজন থাকবে। দুইটি আলাদা মঞ্চে কয়েকটি রেষ্টুরেন্টের বুথ এবং মেলা হবে যেখানে বিভিন্ন রাইড থাকবে। শ্রমিক দিবস উপলক্ষে আজ শনিবার (৩১ আগষ্ট) থেকে সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত হ্যামট্রম্যাক  হবে সময় কাটানোর আনন্দঘন মুহূর্ত। এবারও এর ব্যতিক্রম হবে না। 
যেভাবে শ্রম দিবস উৎসবের শুরু :
হ্যামট্রম্যাক  শহরে এ উৎসব ৩৯ বছর ধরে চলছে। যা অত্যন্ত আনন্দের ১৯৮০ সালে যখন হ্যামট্রম্যাক শহরের উৎসব আয়োজনের প্রস্তাব করা হয় তখন সময়টা খুব খারাপ ছিল। শহরটি এমন খারাপ সময় কেউ আগে কখনো দেখেনি। ডজ মেইন ফ্যাক্টরি বন্ধ হয়ে গেছে। সাত দশক ধরে এই ফ্যাক্টরির মাধ্যমেই হ্যামট্রম্যাক পরিচিতি পেয়েছে। হাজার হাজার মানুষকে চাকরি দিয়েছে এবং মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার আয় করেছে। এটা যখন ভবিষ্যতের অনিশ্চয়তা সম্মুখীন হয়েছিল তখন শহরের পরিস্থিতি ছিল ভয়ানক। কিছু নি:স্বার্থ মানুষের সহায়তায় তৎকালীন মেয়র রবার্ট কোজারেন বড় ধরণের একটি উৎসবের আয়োজন করেন যা কেবল বাসিন্দাদের মধ্যে উদ্দীপনারই জাগিয়ে দেয়নি, বরং দেখিয়ে দিয়েছিল যে হ্যামট্রম্যাক  ভয়াবহ দুর্যোগের সময়ও হাসতে পারে। সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে উৎসবের আয়োজন করা হয়েছিল। দিনটি ছিল শুক্রবার এবং ঠান্ডা ছিল। ক্যানিফের উত্তরে জ্যোসেফ ক্যাম্পুতে ব্যান্ডের উত্তেজনাই ছিল প্রথম। শুরু থেকে উৎসব সফল হতে শুরু করলো। এতে দশ হাজার মানুষ অংশ নিয়েছিল। তাইতো হ্যামট্রম্যাকবাসীরা একটা বিষয় জানে যে উৎসবের আয়োজন কিভাবে করতে হয়। তবে কেবল হ্যামট্রম্যাকবাসীরাই নন, মেট্রো এলাকার বিভিন্ন স্থান থেকে উৎসবে যোগ দিয়েছিল এবং তারা গান, খাবার, হস্তশিল্পের মেলা ও মজার কৌতুক উপভোগ করেছিল। পরে উৎসবটি শ্রমিক দিবসে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কারণ এই সময় আবহাওয়া খুব ভাল এবং দীর্ঘ ছুটির সময়। শ্রমিক দিবসে পোলিশ ডে প্যারেডেরও আয়োজন থাকে। উৎসবে কয়েক বছর ধরে পরিবর্তন এসেছে। এখানে বিভিন্ন ধরণের বিক্রেতা এবং বিনোদন কর্মীরা আসে। তবে সামর্থ্যরে মধ্যেই সবাইকে আনন্দ দেওয়ার চেষ্টাটাই এখানে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখে। 
হ্যামট্রম্যাক এর ইতিহাস :
আমেরিকান অভ্যুত্থানের সময় গড়ে ওঠে হ্যামট্রম্যাক । প্রায় শত বছর ধরে হ্যামট্রম্যাক  ছিল অপরিচিত। মিশিগানের ডেট্রয়েটের প্রান্তের মানুষগুলো কৃষিকাজ করেই জীবনধারণ করতো। ১৯১০ সালে জন এবং হোরেসের ডজেস ফ্যাক্টরি চালুর মাধ্যমে নতুনভাবে শহরটি আবির্ভূত হয়। এক দশকের মধ্যে হ্যামট্রম্যাক চরম ব্যস্ত শহরে পরিণত হয়। ১৯৩০ সালের মধ্যে মাত্র ২ দশমিক এক বর্গমাইলের ভেতরে এর জনসংখ্যা দাঁড়ায় ৫৬ হাজারে। যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে এটা অন্যতম ঘনবসতিপূর্ণ শহরে পরিণত হয়। জনসংখ্যার অধিকাংশই ছিল পোলিশ (পোল্যান্ডের নাগরিক) অভিবাসী। এদিক থেকে এটা অভিবাসীদের এক ইতিহাস তুলে ধরে। এসব মানুষ যুক্তরাষ্ট্রে আসার সময় গায়ের পোশাক এবং বলবান শরীর ছাড়া আর কিছুই তেমন নিয়ে আসেনি। অল্প সময়ের মধ্যে তারা অনেক আয় করতে সমর্থ হয় এবং বাড়ি ক্রয় করে। অনেকের মতো তারাও উন্নত জীবনের খোঁজ শুরু করে। রাশিয়ান, প্রশিয়ান, অস্ট্রিয়ান এবং জার্মানদের দ্বারা নিষ্পেষিত হয়ে পোলিশ অভিবাসীরা গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করে। তারা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া শুরু করে এবং সরকারি অফিসে যোগ দেয়। ১৯২২ সালে যখন হ্যামট্রম্যাক  শহর হিসেবে স্বীকৃতি পায় তখন পোলিশরাই নিয়ন্ত্রণে আসে। শহরে রাজনীতি শুরু হয় এবং তা ছিল উত্তেজনাকর। নগরায়নের দিকে এগিয়ে যায়, কর্কশ বিনোদনের ব্যবস্থা হয় এবং বেঁচে থাকার তাগিদ দেয় এসব। তারা একাকী ছিল না। যখন ভারী শিল্পের দেখা পাওয়া দুষ্কর ছিল তখন পোলিশ আমেরিকানরা শহরতলীতে যায় এবং সেখানেও কাজ শুরু করে। অভিবাসী সম্প্রদায়ের দ্বারাই হ্যামট্রম্যাক   জেগে উঠেছে। হ্যামট্রম্যাক গঠনে স্থায়িত্ব দিয়েছে আফ্রিকান অভিবাসীরা। প্রায় শত বছর আগে শহরটি অভিবাসীদের মধ্যে আকর্ষণ সৃষ্টি করেছিল। আর এখন তো আরব, বাংলাদেশি, বসনিয়ান, সার্বিয়ান এবং অন্যরাও এ শহরের আকর্ষণে ছুটে আসে এবং বসতি গড়ে। শহরটি অনেক চড়াই উৎরাই অতিক্রম করেছে। হ্যামট্রম্যাক  এর ইতিহাস বড় ব্যবসায়ী  টাইকুনস,  কমিউনিস্ট ষড়যন্ত্র, গ্যাংস্টার, শ্রমিক গুন্ডা, দুর্নীতি এবং ধ্বংসাত্মক রাজনৈতিক বিরোধের নাটক দিয়ে পূর্ণ। হ্যামট্রম্যাক এখন শিল্প কারখানা এবং উচ্চ আবেগ দ্বারা পরিচালিত হয়। কিন্তু কিছু হ্যামট্রম্যাকবাসীর মধ্যে লোভ এবং ক্ষমতার লোভ কাজ করে। এটা শক্তিশালী পারিবারিক মূল্যবোধ, গভীর ধর্মীয় বিশ্বাস, সহানুভূতিশীল ও বড় শিক্ষা কর্মসূচির গল্প। এটা ধনী সমাজের কাঠামোর গল্পও বটে। এটা চক্রান্ত, সমৃদ্ধ চরিত্র, দুর্নীতি ও কৌশলী, সম্মানিত ও উচ্চ মানসিকতার মানুষের গল্প। সর্বোপরি এই সাধারণ গল্প অসাধারণ মানুষের।
তথ্যসূত্র : (হ্যামট্রম্যাক লেবার ডে ফ্যাস্টিবল, কোভালস্কি, গ্রেগ। হামট্রাম্ক: দ্য ড্রাইভেন সিটি। চার্লসটন: আর্কেডিয়া পাবলিশিং, ২০০২)। ফ্যাস্টিবল সংক্রান্ত সমস্ত বিবরণ https://hamtownfest.com এ রয়েছে।  

 


এ জাতীয় আরো খবর