মঙ্গলবার, অক্টোবর ৪, ২০২২

১০০ লাইনের রাণীবন্দনা মোমিন মেহেদীর

  • নিজস্ব প্রতিবেদক :
image

ঢাকা, ০৯ সেপ্টেম্বর : গ্রেট ব্রিটেনের রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুতে গভীর শোক ও সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দেয়ার পাশাপাশি সুদীর্ঘ ছড়া-কবিতা লিখেছেন নতুনধারার রাজনীতির প্রবর্তক কলামিস্ট মোমিন মেহেদী। তিনি ফেসবুকে তাঁর Momin Mahadi ভেরিফায়েড পেইজে দীর্ঘ ছড়া-কবিতায় যেমন নিবেদন করেছেন রানীর প্রতি শ্রদ্ধা; তেমনি বিশ্বের সকল রাষ্ট্রনায়কের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন নিবেদিত থাকতে দেশের জন্য-মানুষের কল্যাণের জন্য।  একই সাথে খুব প্রাঞ্জলভাষায় সমালোচনা করেছেন, সেই সকল রাষ্ট্রনায়কদের যারা উন্নয়নের কথা বলে পতনের দিকে নিয়ে গেছে দেশকে এবং মানুষকে ফেলেছে চরম কষ্টের মধ্যে। মোমিন মেহেদীর ১০০ লাইনে নিবেদিত লেখাটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

রাণী
(গ্রেট ব্রিটেনের রাণীকে নিবেদিত)
মোমিন মেহেদী
১৯২৬ সালের ২১ এপ্রিল
জন্ম নিয়ে তুমি
ধন্য করে দিলে স্বদেশ
এই যে জগৎ ভূমি
তোমার জ্ঞানের আলোয়
এখন আলোকিত সব
চলছে বিটেন-লন্ডনে খুব
শোকের কলরব
তোমায় যারা বাসতো ভালো
ভাসছে চোখের জলে
আমজনতার কল্যাণে খুব
ব্যস্ত থাকতে বলে!
তোমার দয়ার অনেক কথা
যাচ্ছে শোনা আজ
যখন তুমি চলেই গেলে
থেমে গেলো কাজ
আহা মানুষ! কত্ত মানুষ
তোমার নীতির পথে
এগিয়ে এসে গড়ছে জীবন
নিপুন প্রীতির ব্রতে
তোমার নীতি তোমার প্রীতি
পাবে না আর কেউ
বিশ্বজুড়ে উথাল-পাথাল
চলছে শোকের ঢেউ
একজীবনে এমন তুমি
যেমন থাকে পরী
পরীর মত অবিরত
কল্যাণেরই ছড়ি
ঘুরিয়ে তুমি আনতে আলো
দূর করতে কষ্ট
আজ তোমার বিদায়খবর
মন করলো নষ্ট
৭০ বছর শাসন করে
প্রমাণ দিলে এই
মানবতার উপরে আর
অন্য কিছু নেই।
প্রমাণ দিলে- ইচ্ছে থাকলে
যায় যে করা বেশ
যায় যে গড়া সত্যিকারেই
মানুষ এবং দেশ।
ইচ্ছেটাই নাই যে তাদের
ক্ষমতাটা চাই
এই কারণে অ-নে-ক দেশেই
চলছে যে খাই খাই!
দুর্নীতিতেও সেরা তারা
কারণ তারা ভন্ড
এককথাতে বলতে গেলে
কাজে অশ্বডিম্ব।
উন্নয়নের রোল মডেল
উন্নয়নের দেশ
গড়ে দিয়েও নিরব রাণী
শ্রদ্ধা অশেষ।
তোমার জীবন শিক্ষণীয়
শিখবে যারা শিখবে
বরাবরের চেয়ে তারা
অন্যভাবে লিখবে
লিখবে তারা তাদের জীবন
নিবেদিত থেকে
যাবেই তারা আমজনতার
জন্য আলোয় ডেকে
থাকবে আলোয় ডাকবে আলোয়
যদি ভাবে তোমায়
যাবে না আর রাজপথে জীবন
উড়বে না কো বোমায়
৯৬ বছরজুড়ে
নিবেদিত থাকায়
রাণী তোমায় নিয়ে লিখি
ভালোবাসার চাকায়
ভালোবাসা চলতে থাকে
বলতে থাকে সত্য
তাড়িয়ে দিয়ে সাহস নিয়ে
শূণ্য করে দৈত্য
এই কারণে তোমায় দিলাম
শ্রদ্ধা ভালোবেসে
কাজের মাঝে বেঁচে থেকো
বোদ্ধা আলো হেসে
অনুকরণ করুক তোমায়
সকল দেশের চালক
বন্ধু হবে তোমার মত
হবে না গো পালক
তোমার মত হাসবে হাসি
তোমার মত লড়বে
সারাজীবন দিয়ে হলেও
দেশটাকে খুব গড়বে
প্রত্যাশাতে তোমায় দিলাম
শ্রদ্ধা আবার রাণী
কোটি বছর থাকবে বেঁচে
কর্মে তোমার জানি।
ধর্ম তোমার যেটাই হোক
কর্মে ছিলে ভালো
স্রষ্টার কাছে রইলো দোয়া
জ্বলুক শান্তি আলো
ভালো থাকো পরপারে
ভালো থাকো তুমি
ভালো থাকুক কল্যাণে খুব
মানুষ এবং ভূমি
নতুনধারার রাজনীতিকরা
তোমায় নিয়ে ভাববো
কারণ তুমি নীতির মানুষ
ছিলে ভালোর কাব্য।
উল্লেখ্য, মোমিন মেহেদীর লেখা প্রথম প্রকাশিত হয় ১৯৯৬ সালে দৈনিক ইত্তেফাকে। এযাবৎ তার প্রকাশিত গ্রন্থ ৬৭ টি। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র অধিকার আন্দোলন জোটের সভাপতি হিসেবে ২০০৫ সালের ২৮ আগস্ট ডাকসু নির্বাচনের দাবিতে টিএসসিতে অনশন করে আলোচনায় আসেন। ছাত্র জীবনে ২০০৪-২০০৯ পর্যন্ত তিনি বেশ কয়েকবার গ্রেফতার ও কারাভোগ করেন ছাত্র-শিক্ষকদের দাবি আদায়ের আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়ায়।  তাঁর নেতৃত্বে নতুন প্রজন্মের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে ২০১২ সালের ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে আত্মপ্রকাশ করে নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবি। 


এ জাতীয় আরো খবর