সোমবার, নভেম্বর ২৮, ২০২২

সপ্তমীতে মিশিগানের মন্দিরে মন্দিরে ভক্তদের ঢল : আজ মহাষ্টমী

  • নিজস্ব প্রতিবেদক :
image

ওয়ারেন, ০৩ অক্টোবর : পূজা অর্চনা, মন্ত্রপাঠ, অঞ্জলী প্রদান, শঙ্খ ধ্বনি আর ঢাকের শব্দে মুখরিত  মিশিগানের বিভিন্ন পূজামণ্ডপ। গতকাল রবিবার সপ্তমীতে ভক্ত-দর্শনার্থীর ঢল নেমেছিল মন্দিরে মন্দিরে। সকালে নবপত্রিকা প্রবেশের মধ্যদিয়ে শুরু হয় সপ্তমী পুজো। নবপত্রিকাকে দেবীর ডানদিকে সিদ্ধিদাতা গণেশের পাশে অধিষ্ঠিত করা হয়েছে। আজ সোমবার মহা অষ্টমী। রাতে হবে সন্ধি পূজা। অষ্টমী ও নবমী তিথির সন্ধিক্ষণে এই সন্ধিপূজা অনুষ্ঠিত হয়।

নবপত্রিকার আক্ষরিক অর্থ ৯টি পাতা। রম্ভা (কলাগাছ), কচু, হরিদ্রা (হলুদ), জয়ন্তী, বিল্ব (বেল), দাড়িম্ব (ডালিম), অশোক, মান ও ধান এই ৯টি উদ্ভিদ দিয়ে তৈরি করা হয় এই নবপত্রিকা। মূলত এই ৯টি উদ্ভিদ দেবী দুর্গার ৯টি শক্তির প্রতীক। নবপত্রিকার পুজো প্রকৃতপক্ষে শস্যদেবীর পুজো। এই শস্যবধূকেই দেবীর প্রতীক রূপে গ্রহণ করে প্রথমে পুজো করতে হয়। নবপত্রিকা প্রবেশের পর দর্পণে দেবীকে মহাস্নান করানো হয়। এই দিনই চক্ষুদানের মধ্য দিয়ে প্রাণ প্রতিষ্ঠা করা হয় দেবীর মৃন্ময়ীতে। মহাসপ্তমীতে ষোড়শ উপাচারে (১৬ উপাদানে) দুর্গা দেবীর পূজা করা হয়েছে। একই সঙ্গে দেবীকে আসন, বস্ত্র, নৈবেদ্য, স্নানীয়, পুষ্পমাল্য ও চন্দন দিয়ে পূজা করা হয়। 

গতকাল দুপুর ১টার দিকে শিব মন্দিরে দেবীর চরণে অঞ্জলি প্রদান করেন ভক্তরা। একইভাবে মিশিগান কালীবাড়ি, ডেট্রয়েট দুর্গা টেম্পলসহ  বিভিন্ন মণ্ডপে পূজা শেষে দেবী দুর্গার চরণে পুষ্পাঞ্জলি দেন ভক্তরা। এ সময় ঢাকের তালে, মন্ত্র ও চন্ডীপাঠ, কাঁসর ঘণ্টা, শঙ্খধ্বনি আর উলুধ্বনিতে মন্দিরে মন্দিরে উৎসবে মেতে উঠে প্রবাসী হিন্দুরা। মন্দিরে মন্দিরে  ভক্তদের মাঝে দুপুর থেকে রাত অবধি মহা প্রসাদ বিতরণ করা হয়েছে। 

উৎসবমুখর পরিবেশে এক মণ্ডপ থেকে আরেক মণ্ডপ ঘুরে প্রতিমা দর্শনের মধ্য দিয়ে দিনটি পার করেছে হিন্দু সম্প্রদায়ের নারী পুরুষ শিশুসহ নানা বয়সের মানুষ। বিভিন্ন পূজা মণ্ডপ ঘুরে দেখা গেছে, সপ্তমীতে ভক্ত-দর্শনার্থীর ঢল নেমেছিল মন্দিরে মন্দিরে।প্রতিটি মন্দিরই আলোকসজ্জা ও বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে।

এদিকে  মহাষ্টমীতে আজ সোমবার রাত সাড়ে ৭টায় শিবমন্দিরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন অতিথি শিল্পী মনীষা। পরে আরতি ও ধুনচি নাচ অনুষ্ঠিত হবে।


এ জাতীয় আরো খবর