সোমবার, নভেম্বর ২৮, ২০২২

সৌদি আরবের কাছে হারল আর্জেন্টিনা

  • সুপ্রভাত মিশিগান ডেস্ক :
image

ছবি : ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ, ফেসবুক পেইজ

লুসাইল, ২২ নভেম্বর : কাতার বিশ্বকাপ আসরের তৃতীয় দিনের ম্যাচে এক ব্যাতিক্রম দৃশ্য দেখলো গোটা ফুটবল বিশ্ব। শক্তিশালী আর্জেন্টিনার বিপক্ষে বিধ্বংসী রূপ ধারণ করে ২ গোল দিয়ে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে আরবরা। আর্জেন্টিনার সমর্থকরা বিরতির আগেও যা কল্পনা করেন নি বিরতির পর যেন তাই দেখিয়েছেন সৌদি খেলোয়াড়রা। বিনিময়ে আর্জেন্টিনাকে কাতার বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই হারের মুখ দেখতে হয়েছে।
মঙ্গলবার বিশ্বকাপে জয় দিয়ে অভিযান শুরু করল সৌদি আরব। কাতারের বেন লুসেইল স্টেডিয়ামে সৌদি আরবের মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা। গোটা বিশ্ব অধীর আগ্রহে যেন সেদিকেই তাকিয়ে ছিল। টানা ৩৬ ম্যাচে অপরাজিত থেকে এদিন মাঠে নেমেছিল আর্জেন্টিনা। ধারে ভারে অনেকটাই পিছিয়ে সৌদি আরব। ফিফা ক্রমতালিকাতেও আর্জেন্টিনার থেকে ৪৮ ধাপ পেছনে আছে সৌদি।
বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের বিরুদ্ধে খেলা শুরুর ১০ মিনিটের মধ্যে গোল করে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দিলেন মেসি। ম্যাচের ৮ মিনিটে আক্রমণে উঠেছিলো লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা। সৌদি আরব ডিফেন্ডার আল বুলাহি ডি-বক্সের ভেতর ফেলে দেন লিয়ান্দ্রো পারাদেসকে। ভিএআর দেখে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। পেনাল্টি নিতে এসে একটুও ভুল করেননি আর্জেন্টাইন অধিনায়ক মেসি। ঠান্ডা মাথায় গোলরক্ষককে উল্টোদিকে ফেলে বল জালে জড়ান মেসি। ভার প্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে পেনাল্টি দেন রেফারি।
খেলার শুরু থেকেই দাপট রেখেছিল আর্জেন্টিনা। শুরু থেকেই ছন্দে ছিলেন মেসিও। প্রথম ২ মিনিটের মধ্যেই এগিয়ে যেতে পারত আর্জেন্টিনা। ডান প্রান্তে বল পেয়ে বক্সের কাছে এসে লাউতারো মার্তিনেজের দিকে বাড়ান দি মারিয়া। মার্তিনেজের ব্যাক হিল ধরে বাঁ পায়ের মাটি ঘেঁষা শটে গোল করার চেষ্টা করেন মেসি। কিন্তু গোড়ালির দিকে বল লাগায় ঠিক জায়গায় বল জালে জড়ায়নি। অসাধারণ দক্ষতার সঙ্গে ঝাঁপিয়ে বাঁচিয়ে দেন সৌদির গোলরক্ষক মোহাম্মদ আল ওয়াইস।
২২ মিনিটের মাথায় আরও এক বার সৌদি আরবের জালে বল জড়ান মেসি। কিন্তু লাইন্সম্যান অফসাইডের পতাকা তোলেন। মেসির উদ্দেশে যখন বল বাড়ানো হয়েছিল, তখনই অল্পের জন্য অফসাইডের ফাঁদে ছিলেন তিনি। তাই গোল বাতিল করেন রেফারি। পাঁচ মিনিট পরে আরও এক বার গোল করে আর্জেন্টিনা। এ বার গোল করেন লাউতারো মার্তিনেজ। প্রথমে গোল দিয়ে দেন রেফারি। কিন্তু পরে ভার প্রযুক্তির সাহায্যে দেখা যায় অফসাইডে ছিলেন মার্তিনেজ। গোল বাতিল হয়।
প্রথম থেকে গা ছাড়া মনোভাব নিয়ে ফুটবল খেলছিল সৌদি আরব। মেসিকে জোনাল মার্কিংয়ে রাখার চেষ্টা করছিল তারা। তাই বার বার জায়গা বদল করে খেলছিলেন মেসি। ৩৪ মিনিটের মাথায় মেসির আবার গোল করেন মার্তিনেজ। কিন্তু সেটিও অফসাইডের কারণে বাতিল করেন রেফারি। প্রথমার্ধেই অফসাইডের কারণে আর্জেন্টিনার তিনটি গোল বাতিল হয়। এরপর আরও কিছু আক্রমণ চালায় আর্জেন্টিনা। ম্যাচের ৪২ মিনিটে ডি পলের নেওয়া শট চলে যায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে। শেষ পর্যন্ত আর কোন গোল না হলে ১ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় আর্জেন্টিনা।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুটা ভাল হল না আর্জেন্টিনার। বিরতি থেকে ফিরেই গোল করে ম্যাচে সমতা আনে সৌদি আরব। ম্যাচের ৪৭ মিনিটে অসাধারণ গোল করেন আল সেহরি। তবে ম্যাচের ৫৩ মিনিটে একক প্রচেষ্টায় অসাধারণ এক গোলে সৌদি আরবকে ম্যাচে দলকে ২-১ এ এগিয়ে দেন আল দাউসারি।

 


এ জাতীয় আরো খবর