মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ৭, ২০২৩

২০২৩-এ বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক মন্দা!

  • সুপ্রভাত মিশিগান ডেস্ক :
image

কলকাতা, ৩০ ডিসেম্বর : সারা বিশ্ব জুড়ে মূল্যস্ফীতি বৃদ্ধি পেয়েছে। এর যথেষ্ট প্রভাব পড়ছে অর্থনীতিতে (Economy)। তবে এই প্রভাব সামান্য নয় বরং বিশ্ব অর্থনীতিকে রীতিমত নাড়িয়ে দিতে সক্ষম। আগামীতে এই উচ্চ মূল্যস্ফীতি (High Inflation) আনতে পারে মন্দা (Recession), এমনটাই বলছেন গবেষকরা । সেন্টার ফর ইকোনমিক্স অ্যান্ড বিজনেস রিসার্চ এর (CEBR) একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, নতুন বছর অর্থাৎ ২০২৩ সালে বিশ্ব অর্থনীতি ক্রমশ মন্দার দিকে এগোচ্ছে। আর এই মন্দার কারণ হল বিশ্বজুড়ে ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতি এবং ব্যাংক সুদের হার।

ব্লুমবার্গের রিপোর্ট অনুযায়ী সিইবিআর এর ডিরেক্টর কে এ ড্যানিয়েল নিউফেল্ড বলেন, “উচ্চ মুদ্রাস্ফীতির প্রতিক্রিয়া হিসেবে সুদের হার বৃদ্ধির কারণে ২০২৩ এ বিশ্ব অর্থনীতি মন্দার দিকে এগিয়ে যেতে পারে”। একই সঙ্গে প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ‘ মুদ্রাস্ফীতির বিরুদ্ধে যে লড়াই চলছে তাতে এখনও পর্যন্ত জয় মেলেনি । তবে আশা করা যায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও ২০২৩ সালে তাদের নীতিগত অবস্থানে স্থির থাকবে। মূল্যস্ফীতিকে যুক্তিসঙ্গত পর্যায়ে নামিয়ে আনতে আরও কয়েক বছর সময় লাগবে’।
রিপোর্ট অনুসারে, বিশ্ব অর্থনীতি (Global Economy) ২০২২ সালে প্রথমবারের জন্য ১০০ ট্রিলিয়ন ডলার অতিক্রম করতে প্রস্তুত । কিন্তু ২০২৩ সালে তা স্থবির হয়ে পড়তে পারে । এর কারণ নীতি নির্ধারকরা ক্রমবর্ধমান মূল্যের বিরুদ্ধে তাদের যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছেন । সাম্প্রতিক কালে একটি গবেষণা করা হয়। যেখানে দেখা যায় আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল পূর্বের চেয়ে আরও অনেক বেশি হতাশ করার মত। সেই প্রতিষ্ঠান অক্টোবরে সতর্ক করেছিল যে, বিশ্ব অর্থনীতির এক তৃতীয়াংশের বেশি সংকুচিত হতে পারে । আর ২০২২ সালে বিশ্বব্যাপী জিডিপি ২ শতাংশের কম বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে।

আগামী ১৫ বছরে কী হতে চলেছে বিশ্ব অর্থনীতিতে ?
চিন (China) ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতিতে পরিণত হবে এমনটাই ভবিষ্যৎবাণী করা হয়েছিল। কিন্তু বর্তমানে দাঁড়িয়ে তা সম্ভব হবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে চিন বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত। এছাড়াও রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধের পর পশ্চিমা দেশগুলির সঙ্গে চিনের বাণিজ্য ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সিইবিআর এর রিপোর্ট অনুযায়ী, বিশ্ব মন্দা খুব দ্রুত দেখা দিতে চলেছে। আর এক্ষেত্রে চিনেরও ক্ষতি হবে বহু গুণ। ব্লুমবার্গের একটি রিপোর্ট অনুসারে সিইবিআর তার একটি রিপোর্টে জানায়, ভারত (India) ২০৩৫ সালে ১০ ট্রিলিয়ন ডলারের অর্থনীতিতে পরিণত হবে। আর বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতিতে পরিণত হবে ২০৩২ সালের মধ্যে।
সূত্র : ।। প্রথম কলকাতা ।।


এ জাতীয় আরো খবর