মঙ্গলবার, জানুয়ারী ২৬, ২০২১

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৯ : শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র ন’ ডরাই ও ফাগুন হাওয়া

  • সুপ্রভাত মিশিগান ডেস্কঃ
image

ঢাকা, ৩ ডিসেম্বর : জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৯ ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার এক প্রজ্ঞাপনে পুরস্কারপ্রাপ্তদের তালিকা প্রকাশ করে তথ্য মন্ত্রণালয়। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৯ এ যৌথভাবে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছে ন’ ডরাই ও ফাগুন হাওয়া। আজীবন সম্মাননা পেয়েছেন সোহেল রানা এবং সুচন্দা। 
‘আবার বসন্ত’ সিনেমার জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে পুরস্কার পেয়েছেন তারিক আনাম খান এবং ‘ন ডরাই’ সিনেমার জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন সুনেরাহ বিনতে কামাল।  পার্শ্ব চরিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন ফজলুর রহমান বাবু (ফাগুন হাওয়ায়) ও নারগিস আক্তার (মায়া দ্য লস্ট মাদার)। খল চরিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন জাহিদ হাসান (সাপলুডু)। শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পীর পুরস্কার পেয়েছে নাইমুর রহমান আপন (কালো মেঘের ভেলা) ও আফরীন আক্তার (যদি এক দিন)।
শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী ইমন (মায়া দ্য লস্ট মাদার)। শ্রেষ্ঠ নৃত্য পরিচালক হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন হাবিবুর রহমান (মনের মতো মানুষ পাইলাম না)। শ্রেষ্ঠ গায়কের পুরস্কার পেয়েছেন মৃণাল কান্তি দাস (তুমি চাইয়া দেখো… শাটল ট্রেন)। শ্রেষ্ঠ গায়িকার পুরস্কার পেয়েছেন মমতাজ বেগম (বাড়ির ওই পূর্বধারে… মায়া দ্য লস্ট মাদার) ও ফাতিমা-তুজ-জোহরা ঐশী (মায়া, মায়া রে... মায়া দ্য লস্ট মাদার)।
শ্রেষ্ঠ গীতিকারের পুরস্কার পেয়েছেন কবি নির্মলেন্দু গুণ (ইস্টিশনে জন্ম আমার… কালো মেঘের ভেলা) ও ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী (চল হে বন্ধু চল… মায়া দ্য লস্ট মাদার)। শ্রেষ্ঠ সুরকার বিভাগে পুরস্কার পেয়েছেন প্লাবন কোরেশি (বাড়ির ওই পূর্বধারে… মায়া দ্য লস্ট মাদার) ও সৈয়দ মো. তানভীর তারেক (আমার মায়ের আঁচল… মায়া দ্য লস্ট মাদার)।
শ্রেষ্ঠ কাহিনিকার বিভাগে পুরস্কার পেয়েছেন মাসুদ পথিক (মায়া দ্য লস্ট মাদার)। শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকারের পুরস্কার পেয়েছেন মাহবুব উর রহমান (ন ডরাই)। শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতার পুরস্কার পেয়েছেন জাকির হোসেন রাজু (মনের মতো মানুষ পাইলাম না)। শ্রেষ্ঠ সম্পাদকের পুরস্কার পেয়েছেন জুনায়েদ আহমদ হালিম (মায়া দ্য লস্ট মাদার)।
শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক বিভাগে পুরস্কার পেয়েছেন মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ বাসু (মনের মতো মানুষ পাইলাম না) ও মো. ফরিদ আহমেদ (মনের মতো মানুষ পাইলাম না)। শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন সুমন কুমার সরকার (ন ডরাই)। শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন রিপন নাথ (ন ডরাই)। শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জায় পুরস্কার পেয়েছেন খোন্দকার সাজিয়া আফরিন (ফাগুন হাওয়ায়)। শ্রেষ্ঠ মেকআপম্যান হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন মো. রাজু (মায়া দ্য লস্ট মাদার)।
এ ছাড়া শ্রেষ্ঠ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের পুরস্কার পেয়েছে নারী জীবন। স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউট। যা ছিলো অন্ধকারে প্রামাণ্যচিত্রের জন্য বাংলাদেশ টেলিভিশন পেয়েছে শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্য চলচ্চিত্রের পুরস্কার।
এবার চমক দেখিয়েছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা মাসুদ পথিক। ‘মায়া- দ্য লস্ট মাদার’ ছবিটি এ বছর সর্বোচ্চ আটটি বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাচ্ছেন। আর ছয়টি বিভাগে পুরস্কার পাচ্ছে স্টার সিনেপ্লেক্স প্রযোজিত ছবি ‘ন ডরাই’ এবং তিনটি করে পুরস্কার পাচ্ছে ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ‘ফাগুন হাওয়ায়’ ও দেশ বাংলা মাল্টিমিডিয়ার ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ ছবিটি। 
২০১৯ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার দিতে জুরি বোর্ড গঠন করে সরকার। গঠিত বোর্ড সংশ্লিষ্ট নীতিমালা অনুযায়ী মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রগুলো মূল্যায়ন করে পুরস্কারপ্রাপ্তদের নাম সুপারিশ করে। আর এর ভিত্তিতে নাম ঘোষণা করা হয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয়ীদের নাম। শিগগিরই জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 


এ জাতীয় আরো খবর