শুক্রবার, এপ্রিল ১৬, ২০২১

করোনার টিকা দিতে ফোর্ড ফিল্ডকে ব্যবহারের আশা করছে ফেমা

  • সুপ্রভাত মিশিগান ডেস্কঃ
image

ছবি : ফেডারেল কর্মকর্তারা ডেট্রয়েটের ফোর্ড ফিল্ডকে একটি গণ সিওভিড-১৯ টিকা করণের সম্ভাব্য স্থান হিসেবে দেখছেন। (Photo : Daniel Mears, The Detroit News)

ডেট্রয়েট, ২৪ ফেব্রুয়ারি : ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট এজেন্সির কর্মকর্তারা ফোর্ড ফিল্ডকে একটি বৃহৎ টিকাদান সাইট হিসেবে ব্যবহারের পরিকল্পনা করছেন। আগামী মাসে শহরতলি ডেট্রয়েটে খোলা যেতে পারে, পরিকল্পনার সাথে পরিচিত সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।
সোমবার সকালে মিশিগান রাজ্য পুলিশ, ডেট্রয়েট শহর ও লায়নদের প্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা স্টেডিয়ামটি পরিদর্শন করেছেন। পরিকল্পনাকারীরা সুবিধাটি পর্যালোচনা করেছিলেন, যা একটি মায়ার্স ক্লিনিকে রূপান্তরিত হওয়ার কথা ছিল। আশা করা হচ্ছে এটি প্রসারিত হবে। পরের সপ্তাহে চালু হওয়া মায়ার্স ক্লিনিকটি দিনে ২ হাজার টিকা বিতরণে সহায়তা করবে।
ফেমার কর্মকর্তারা প্রত্যাশা করেছিলেন যে তারা মার্চের মাঝামাঝি নাগাদ গণ টিকা দেওয়ার কেন্দ্র খুলতে পারবেন এবং দিনে ৮,০০০ লোককে টিকা দিতে পারবেন। কয়েকটি সূত্র ডেট্রয়েট নিউজকে এই তথ্য জানিয়েছে।
ফেমার কর্মকর্তারা সোমবার ভ্যাকসিনেশন সাইটটি পরিদর্শন করার বিষয়টি স্বীকার বা অস্বীকার করেননি। তবে দ্য নিউজকে দেওয়া একটি ইমেইলে বলেছিলেন যে, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের পরিকল্পনাকে বাস্তবায়ন করতে ফেডারেল ও রাজ্য কর্মকর্তা, উপজাতি ও আঞ্চলিক কর্তৃপক্ষের সাথে সমন্বয় করতে সহায়তা করছে। ফেমার মুখপাত্র জানিয়েছেন, টিকাদান কার্যক্রমে ফেডারেল কর্মকর্তাদের কিভাবে সহায়তা করা যায় সেই বিষয়ে রাজ্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে কাজ করছি আমরা। "আমাদের রাজ্য এবং স্থানীয় অংশীদারদের সাথে ফেমা সম্ভাব্য টিকাদান সাইটগুলির জন্য অবস্থান মূল্যায়ন করছে এবং চিহ্নিত করছে।
গভর্ণর গ্রেচেন হুইটমারের অফিস কোনও বিবরণ দিতে অস্বীকার করেছে। সিটি এবং ওয়েইন কাউন্টি কর্মকর্তারা কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি। বাইডেন প্রশাসনের উদ্যোগে আরও দ্রুত টিকা দিতে এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মধ্যে তা দিতে বাইডেন প্রশাসনের উদ্যোগের জন্য লস অ্যাঞ্জেলেস এবং ওকল্যান্ডে গত সপ্তাহে প্রথম কোভিড -১৯ টি গণ টিকা দেওয়ার সাইট খোলা হয়েছিল।
হোয়াইট হাউস পরের দু'সপ্তাহের মধ্যে পেনসিলভেনিয়া এবং ফ্লোরিডায় উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন টিকাদান কেন্দ্র খোলা পরিকল্পনা করছে। কর্মকর্তারা বলছেন, যারা সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ তাদের টিকা দেওয়ার লক্ষ্যে তৈরি করা কাঠামোর ভিত্তিতে সাইটগুলি নির্বাচন করা হয়েছে।
মিশিগানে ডেট্রয়েটে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ৩০ হাজার এবং মারা গেছে ১,৮৩৫ জন। এর মধ্যে রাজ্যের বৃহত্তম ওয়েন কাউন্টিতেও রয়েছে। গত বছরের মার্চে করোনা ভাইরাস প্রথম সনাক্ত হওয়ার পরে থেকে মিশিগানে ৫৮১,৪০৩ জন আক্রান্তের রেকর্ড করা হয়েছে এবং ১৫,৩৬২ জন ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে।
রাজ্য সরকার জানিয়েছে, মিশিগানের প্রায় ১৪.৬% বাসিন্দা  টিকার একটি ডোজ পেয়েছেন। ৭.৩%, বা ৫৮৯,৯৪৪ মানুষ উভয় ডোজ সম্পূর্ণ করেছে। মিশিগান স্বাস্থ্য ও মানবসেবা অধিদফতরের মুখপাত্র লিন সুতফিন বলেছেন, সোমবার পর্যন্ত রাজ্যে ২.৩ মিলিয়ন ডোজের মধ্যে ১.৭৮ মিলিয়ন ডোজ দেওয়া হয়েছে। সুতফিন বলেছেন, "৬৫ বছর বা তারও বেশি বয়সী মিশিগানবাসীরা টিকা নিতে পারবেন বলে সুতফিন জানিয়েছেন।

Source & Photo: http://detroitnews.com

 


এ জাতীয় আরো খবর