রবিবার, জুন ১৩, ২০২১

আজ শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা

  • সুপ্রভাত মিশিগান ডেস্ক :
image

ঢাকা, ২৬ মে : আজ  শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা। বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান। বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে ধর্মীয় পবিত্র এই দিনটি  পালিত হচ্ছে ভিন্নভাবে। গতবারের মতো এবারে করোনা মহামারির কারণে সব বিহার, প্যাগোডায় কোনও রকম বুদ্ধ পূর্ণিমার আনুষ্ঠানিক কর্মসূচি পালন করা হবে না। শুধু বৌদ্ধ বিহারে অবস্থানরত ভিক্ষু সংঘরা বিহারে ধর্মীয় অনুষ্ঠান, পূজা, বন্দনাসহ ধর্মীয় কাজ সম্পন্ন করবেন। অন্যান্যরা নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করে ধর্মীয় কার্য প্রতিপালন করবেন। 
এ দিনে বুদ্ধের জন্ম, বোধি লাভ ও মহাপরিনির্বাণ হয়েছিল। প্রায় আড়াই হাজার বছর আগে এই তিথিতে বৌদ্ধ ধর্মের প্রবর্তক গৌতমবুদ্ধ জন্মগ্রহণ করেছিলেন নেপালের লুম্বিনি কাননে। এ রাতেই তিনি বোধিজ্ঞান লাভ করেছিলেন ভারতের বিহার রাজ্যের বুদ্ধগয়ায়। এছাড়া গৌতমবুদ্ধের মৃত্যুও হয়েছিল এ রাতেই। আর এ কারণেই এ তিথিকে বলা হয় বুদ্ধপূর্ণিমা।
দিনটির পরিত্রতা রক্ষায় এ দিনে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা স্নান করেন, শুচিবস্ত্র পরিধান করে মন্দিরে বুদ্ধের বন্দনায় রত থাকেন। ভক্তরা প্রতিটি মন্দিরে বহু প্রদীপ প্রজ্জ্বলিত করেন, ফুলের মালা দিয়ে মন্দির সুশোভিত করে বুদ্ধের আরাধনায় নিমগ্ন হন। এছাড়া বুদ্ধরা এই দিনে বুদ্ধ পূজার পাশাপাশি পঞ্চশীল, অষ্টশীল, সূত্রপাঠ, সূত্রশ্রবণ, সমবেত প্রার্থনা করে থাকেন। বুদ্ধপূর্ণিমা উপলক্ষে দিনটি সরকারি ছুটির দিন। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দেন। বাণীতে তাঁরা শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের মৈত্রীময় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।
এদিকে শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে মিশিগানের বিভিন্ন বৌদ্ধ বিহারে বিভিন্ন কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বুদ্ধপূজা, পঞ্চশীল, অষ্টশীল, সূত্রপাঠ, সূত্রশ্রবণ, সমবেত প্রার্থনা এবং নানাবিধ মাঙ্গলিক অনুষ্ঠান।


 

এ জাতীয় আরো খবর