রবিবার, জুন ১৩, ২০২১

এত সুন্দর মসজিদ আগে দেখেনি গ্রামের মানুষ

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর :
image

রংপুর, ১০ জুন (ঢাকা পোস্ট) : ‘গ্রামের মানুষ এত সুন্দর দৃষ্টিনন্দন মসজিদ আগে দেখেনি। বদরগঞ্জে এটাই প্রথম মডেল মসজিদ,  যা সবাইকে আকৃষ্ট করছে। এই মসজিদকে ঘিরে গ্রামের নারী-পুরুষ সবাই দ্বীনি শিক্ষার পাশাপাশি ইসলামি শিক্ষা-সংস্কৃতি ও জ্ঞান চর্চার সুযোগ পাবে। ইসলামের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই অবদান ধর্মপ্রাণ মানুষ কোনো দিনও ভুলবে না। আমরা বদরগঞ্জবাসী তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ।’

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) দুপুরে রংপুরের বদরগঞ্জে উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এসেছিলেন স্কুলশিক্ষিকা ইয়াসমিন আরা বেগম। অনুষ্ঠান শেষে মডেল মসজিদ নিয়ে অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।  
মডেল মসজিদে প্রতি শুক্রবার জুমার নামাজ আদায় করার ইচ্ছা পোষণ করে ইয়াসমিন আরা বেগম বলেন, অনেকদিন ধরে অপেক্ষায় ছিলাম মডেল মসজিদে নামাজ আদায় করব। আজ সেই আশা পূরণ হতে হচ্ছে। আমি খুবই আনন্দিত ও গর্বিত। গ্রামের অনেক নারী মুসল্লি এখন মসজিদে নামাজ পড়তে পারবেন। ইসলাম সম্পর্কে জানতে পারবেন। এটা আমাদের সৌভাগ্য।
তিনি আরও বলেন, নতুন করে ইসলামের ইতিহাস লিখতে হলে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নাম স্বর্ণাক্ষরে লিখতে হবে। একসঙ্গে এতগুলো মসজিদ নির্মাণ বিশ্বে বিরল। ইসলামের প্রচার ও প্রসারে বর্তমানে তাঁর অবদান অনস্বীকার্য। আজ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভার্চুয়ালি কথা বলতে পেরে আমি ভীষণ আনন্দিত। আল্লাহ্ রাব্বুল আলামিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইসলামের খেদমতে কবুল করেছেন। দোয়া করব পরকালে এসব মসজিদের অসিলায় আল্লাহ্ যেন শেখ হাসিনাকে সর্বোত্তম উপহার দেন।   
উদ্বোধনের পর মডেল মসজিদে জোহরের নামাজ আদায় করেন রংপুর-২ আসনের (বদরগঞ্জ-তারাগঞ্জ) সংসদ সদস্য আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল ওয়াহাব ভূইয়া, রংপুরের জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বিভাগীয় পরিচালক কৃষিবিদ নূরুল ইসলাম, রংপুর গণপূর্ত অধিদফতরের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ্ আল মামুন, বদরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আহসানুল হক চৌধুরী টুটুল, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বী সুইট, বদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান প্রমুখ।
নামাজ আদায় শেষে বিভাগীয় কমিশনার বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মডেল মসজিদের স্বপ্নদ্রষ্টা। তাঁর ইচ্ছা ও আন্তরিকতার কারণে সারাদেশে একসঙ্গে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হচ্ছে। আজ রংপুর বিভাগের দিনাজপুর, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, লালমনিরহাট ও রংপুর জেলার ১১টি মসজিদের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসব মসজিদে শুধু নামাজ আদায় হবে না, ইসলামি জ্ঞান চর্চার পাশাপাশি গবেষণা, শিক্ষা-সংস্কৃতির বিকাশ ঘটবে।
সংসদ সদস্য আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক বলেন, ইসলামের ইতিহাসে শেখ হাসিনার সরকারের অবদান অনস্বীকার্য। বাংলাদেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও জনগণ শেখ হাসিনার হাতে নিরাপদ। একই ভাবে ইসলাম, আলেম-ওলামারাও শেখ হাসিনার সরকারের কাছে নিরাপদ। যতদিন এই সরকার ক্ষমতায় থাকবে, মানুষ শান্তিতে থাকবে। ধর্ম পালন করতে পারবে। বদরগঞ্জের মানুষ আজ আনন্দিত। এতগুলো মডেল মসজিদ নির্মাণ বিশ্বে নজিরবিহীন ঘটনা।
এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রংপুর জেলার ৫টিসহ সারাদেশের পঞ্চশটি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
এ সময় বদরগঞ্জপ্রান্তে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী ডিউক, বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল ওয়াহাব ভূইয়া, পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য, রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, রংপুরের পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বিভাগীয় পরিচালক কৃষিবিদ নূরুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, গণপূর্ত অধিদফতরের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ্ আল মামুন, বদরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আহসানুল হক চৌধুরী টুটুল, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বী সুইট, বদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান প্রমুখ।
মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রথম ধাপে সারাদেশে ৫০টি মডেল মসজিদের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর মধ্যে রংপুর সিটি করপোরেশন এলাকা ছাড়াও সদর উপজেলা, মিঠাপুকুর, পীরগঞ্জ ও বদরগঞ্জের নির্মাণাধীন মডেল মসজিদের উদ্বোধন করা হয়।  এছাড়া দিনাজপুরের খানসামা ও বিরল, লালমনিরহাটের পাটগ্রাম, পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ ও সদর উপজেলা এবং ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার মডেল মসজিদের উদ্বোধন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রংপুর বিভাগের আট জেলায় প্রতিটি জেলা ও উপজেলাতে একটি করে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্স নির্মাণ করছে সরকার।


 

এ জাতীয় আরো খবর