বুধবার, জুলাই ২৮, ২০২১

হবিগঞ্জে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের দর্শনতত্ত্ব নিয়ে আলোচনা

  • হবিগঞ্জ প্রতিনিধি :
image

হবিগঞ্জ, ১৩ জুন :  শব্দকথা টোয়েন্টফোর ডটকম ও শব্দকথা প্রকাশনের আয়োজনে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর দর্শন; বহুত্ব সংস্কৃতিবাদ ও আজকের বিশ্বের উপর শনিবার (১২ জুন) বিকাল ৪ টায় শব্দকথা'র কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শব্দকথা'র প্রধান সম্পাদক সাইফুর রহমান কায়েস এর সভাপতিত্বে ও সম্পাদক ও প্রকাশক মনসুর আহমেদ এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোস্তফা মোরশেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জাহান আরা খাতুন, হবিগঞ্জ নজরুল একাডেমির সভাপতি কথাসাহিত্যিক তাহমিনা বেগম গিনি, শিশু সংগঠক বাদল রায়। 

জাতীয় কবির জীবন দর্শন নিয়ে বক্তব্য রাখেন বৃন্দাবন সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক তানসেন আমিন, কবি বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য্য, বাপা'র সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহেল, কবি অপু চৌধুরী, কথাসাহিত্যিক আখতার উজ্জামান সুমন, কথাসাহিত্যিক সিদ্দিকী হারুন, কবি এম এ ওয়াহিদ, কবি আইয়ুব আলী খাঁন, খোয়াই থিয়েটারের সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন খান, কাউন্সিলর পান্না কুমার শীল, কবি এস এম মিজান, সমাজকর্মী শাহ জয়নাল আবেদীন রাসেল, প্রাবন্ধিক কাউসার খসরু প্রমুখ।


অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোস্তফা মোরশেদ বলেন, "কাজী নজরুল ছিলেন একাধারে একজন কবি, সাহিত্যিক, ঔপন্যাসিক, নাট্যকার, সাংবাদিক, সম্পাদক, সৈনিক, রাজনীতিবিদ, দার্শনিক এবং সঙ্গীতজ্ঞ। বাংলা কাব্যে ও সাহিত্যে তার ভূমিকা অতুলনীয়। তাঁকে নিয়ে আমাদের আরো বেশি আলোচনা করার প্রয়োজনীয়তা ও যথার্থ কারণ রয়েছে। বাংলা সাহিত্য, সমাজ ও সংস্কৃতির অন্যতম শ্রেষ্ঠ ব্যক্তিত্ব ও কবি হলেন আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম, যিনি দুই বাংলাতেই সমানভাবে সমাদৃত। তাঁর দর্শন ধারণ করে সমাজ ব্যবস্থা কায়েম করতে পারলে মানবতার উন্নয়ন হবে। কাজী নজরুল ইসলাম একজন আধ্যাত্মিক কবি। রাজনীতি ও সমাজনীতিতে তাঁর সাম্যবাদী, সত্যবাদী ও ন্যায়নিষ্ঠার আদর্শ লালন করা উচিৎ।"


 

এ জাতীয় আরো খবর