শনিবার, অক্টোবর ২৩, ২০২১

মৃধা ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউটের আর্ট ও রচনা প্রতিযোগিতার ফল প্রকাশ

  • নিজস্ব প্রতিবেদক :
image

গ্রুপ-এ  থেকে এই ছবিটি এঁকে  প্রথম স্থান  অধিকার করেন অহনা বসাক।

সাগিনা, ১৭ সেপ্টেম্বর : অবশেষে অপেক্ষার প্রহর শেষ হলো। প্রকাশ করা হলো মৃধা ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ পিস অ্যান্ড হ্যাপিনেস কর্তৃক বাচ্চাদের বার্ষিক আর্ট ও রচনা প্রতিযোগিতার ফলাফল। কেউ হেরেছে, কেউ জিতেছে। তবে সংগঠনটির পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন জানানো হয়েছে। কারণ কেবল পুরস্কার বিজয়ই এই প্রতিযোগিতার লক্ষ্য নয়। প্রতিযোগীদের মাধ্যমে বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা এবং এই কাজে তাদের উ্দ্বুধ্ব করাই প্রধান লক্ষ্য। বিনামূল্যের এই প্রতিযোগিতা প্রতি বছরই অনুষ্ঠিত হবে। সংগঠনটি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণে বিশ্বব্যাপী তরুণদের আহ্বান জানিয়েছে। কারণ এতে তারা তাদের দক্ষতা এবং প্রতিভার স্বাক্ষর রাখতে পারে। 
ইনস্টিটিউটটি জানিয়েছে, ‌‌‌‌'আমরা শান্তির কথা চিন্তা করে তরুণদের প্রতিভা ও দক্ষতা বিকাশে উৎসাহিত করতে চাই। যে প্রতিযোগিতাগুলি তাদের নিজেদের প্রকাশ করতে এবং তাদের প্রতিভা প্রদর্শনের অনুমতি দেয়। এর মাধ্যমে তারা তাদের চারপাশের বিশ্বের সাথে একটি ইতিবাচক সম্পর্ক গড়ে তুলতে সাহায্য করবে।' এই প্রতিযোগিতা বিশ্বজুড়ে সকল ছেলে-মেয়েদের জন্য উন্মুক্ত।

গ্রুপ-বি  থেকে এই ছবিটি এঁকে  প্রথম স্থান  অধিকার করেন সেতু ভূইয়া।

বার্ষিক আর্ট ও রচনা প্রতিযোগিতা ২০২১ এর ফলাফল

আর্ট প্রতিযোগিতা : গ্রুপ এ

প্রথম স্থান : অহনা বসাক। গ্রেড : ৪, বয়স : ৯ বছরের বেশি
দ্বিতীয় স্থান :নন্দিকা শ্রেয়শী পোদ্দার। গ্রেড : এসটিডি থ্রি, বয়স ৯ বছরের বেশি
তৃতীয় স্থান : রিতোব্রাতো মাঝি। গ্রেড : ৩, বয়স : ৯ বছর

গ্রুপ বি
প্রথম স্থান : সেতু ভূইয়া। গ্রেড : ১০। বয়স ১৪ বছর
দ্বিতীয় স্থান : প্রতিশ্রুতি কর। গ্রেড : ৭। বয়স : ১২ বছরের বেশি
তৃতীয় স্থান : ঐশিকা দাস। গ্রেড : ৭ । বয়স : ১২ বছরের বেশি

গ্রুপ-সি  থেকে এই ছবিটি এঁকে  প্রথম স্থান অধিকার করেন রেবন্ত পাল।

গ্রুপ সি
প্রথম স্থান : রেবন্ত পাল। গ্রেড : ১২। বয়স : ১৭ বছর
দ্বিতীয় স্থান : সৌরজিৎ চক্রবর্তী। গ্রেড : ১২। বয়স : ১৭ বছরের বেশি
তৃতীয় স্থান : আমরিন আহমেদ। গ্রেড : ১০। বয়স ১৬ বছর

রচনা প্রতিযোগিতা

গ্রুপ এ
প্রথম স্থান : হিসান খন্দকার। গ্রেড : এসটিডি ৯ । বয়স : ১৪ বছর
দ্বিতীয় স্থান : ইশা জৈন। গ্রেড : ৯। বয়স : ১৩ বছর
তৃতীয় স্থান : কিরুপালী সত্যনাথন। গ্রেড : ৭। বয়স : ১১ বছর

গ্রুপ বি
প্রথম স্থান : প্রজ্ঞা পাই। গ্রেড : ১২ এবং বয়স ১৭ বছর
দ্বিতীয় স্থান : নিলয় ইসলাম। গ্রেড : ১০। বয়স ১৬ বছর
তৃতীয় স্থান : মানেজা খান। গ্রেড : ১১ বয়স : ১৫ বছর

এদিকে ইনস্টিটিউটের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, আর্ট ও রচনা প্রতিযোগিতায়  মোট ৩৮৩ জন  প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেন। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য সকল বিজয়ী এবং অংশগ্রহণকারীদের অভিনন্দন জানানো হয়েছে। এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমরা আপনার প্রতিভার জন্য আপনার জন্য শুভ কামনা করি এবং আমরা আপনাকে আগামী বছর আমাদের বার্ষিক আর্ট ও রচনা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ জানাই।
অনুগ্রহ করে সমস্ত শিল্পকর্ম এবং অন্যান্য অংশগ্রহণকারীদের লেখা দেখতে   http://www.miiph.org/annual-competition.php-এই ওয়েবসাইটটি ভিজিট করুন। সমস্তপ্রশংসাপত্র এই  ‌ওয়েবসাইটের 'অংশীদার প্রশংসাপত্র বিভাগ' থেকে সংগ্রহ করা যেতে পারে। পুরস্কারের অর্থ বিতরণের জন্য শীঘ্রই বিজয়ীদের সাথে যোগাযোগ করা হবে। বিজয়ীদের নিয়মিত ইমেল চেক করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।
জানা গেছে, আন্তর্জাতিক শান্তি দিবসে আগামী ২১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার মৃধা ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউটের উপদেষ্টা বোর্ড ঘোষণা করা হবে। এদিন সাগিনা সিটির  ওয়াশিংটন এভিনিউতে আয়োজিত ইনস্টিটিউটের পিস ওয়াক- এ কিডস আর্ট অ্যান্ড রাইটিং প্রতিযোগিতায় পিস প্যালসের বিজয়ীদের সম্মানিত অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো হবে। এছাড়া  ইনস্টিটিউট তার অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে শান্তি ও সুখের সন্ধান দেওয়া এবং দ্বন্দ্ব সমাধানের জন্য বিনামূল্যে শিক্ষামূলক কোর্স দেওয়ার পরিকল্পনা করছে। যা আগামী বছরের জানুয়ারীতে চালু হবে। ইনস্টিটিউট ২০২২ সালের শরৎকালে একটি বার্ষিক শান্তি ও সুখী সম্মেলনের আয়োজন করবে। নির্দিষ্ট তারিখ এবং স্থানের নাম আগামী বছরের শুরুতে ঘোষণা করা হবে।

একমাত্র মেয়ে অমিতা ও সহধর্মিনী চিনু মৃধার সাথে ড. দেবাশীষ মৃধা

উল্লেখ্য, ২০০১ সালে মৃধা ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন বাংলাদেশি আমেরিকান স্নায়ুতন্ত্র বিশেষজ্ঞ ড. দেবাশীষ মৃধা ও তাঁর সহধর্মিনী চিনু মৃধা। জন্মলগ্ন থেকেই মিশিগানের বিভিন্ন সামাজিক, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও পেশাদার সংস্থাগুলোর সঙ্গে কাজ করে আসছে মৃধা ফাউন্ডেশন। আর মৃধা ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ পিস অ্যান্ড হ্যাপিনেস (এমআইআইপিএইচ) হল মৃধা ফাউন্ডেশনের একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান। যা ড. দেবাশীষ মৃধা এবং মিসেস চিনু মৃধা কর্তৃক ২০০১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। অলাভজনক এই প্রতিষ্ঠানটির অফিস রাজ্যের সাগিনা সিটিতে অবস্থিত। মৃধা ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ পিস অ্যান্ড হ্যাপিনেস সাগিনা এবং এর বাইরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং জনহিতকর কাজকে সমর্থন করে।
বাংলাদেশে জন্মগ্রহণকারী ড: মৃধা স্নায়ুবিজ্ঞানী হিসেবে তিনি স্বনামধন্য।  ইউক্রেনের কিয়েভ মেডিকেল ইনস্টিটিউটথেকে  মেডিকেল ডিগ্রি লাভ করেন। পরবর্তীতে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান রাজ্যের  ওয়েইন স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে নিউরোফিজিওলজিতে স্নায়ুবিদ্যা রেসিডেন্সি এবং ফেলোশিপ সম্পন্ন করেন। এ ক্ষেত্রে তাঁর মেধার পরিচায়ক হিসেবে রয়েছে একাধিক ডিগ্রীর সার্টিফিকেট। পাশাপাশি তিনি  একজন দার্শনিক, লেখক এবং জনহিতৈষী বক্তি। এ পর্যন্ত তার লেখা পাঁচটি বই প্রকাশ পেয়েছে। এছাড়া তাঁর কোটসগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং বিভিন্ন অনলাইন মাধ্যমে ব্যাপকভাবে প্রচারিত।


এ জাতীয় আরো খবর