শনিবার, অক্টোবর ২৩, ২০২১

মিশিগানে সপ্তমীতে ছিল উৎসব মুখর পরিবেশ : আজ মহাঅষ্টমী

  • নিজস্ব প্রতিবেদক :
image

ওয়ারেন, ১৩ অক্টোবর : পূজার আনন্দে মাতোয়ারা উৎসবপ্রিয় সনাতন বাঙালি হিন্দুরা।  ধূপ-আগরবাতির গন্ধে আর শঙ্খ, ঘণ্টা আর কাঁসরের সঙ্গে ঢাকের শব্দের সঙ্গে ভক্তদের আরাধনায় সপ্তমীতে মিশিগানে ছিল উৎসবমুখর পরিবেশ। আজ বুধবার মহাঅষ্টমী। গতকাল মঙ্গলবার নবপত্রিকা প্রবেশ, স্থাপন, কল্পারম্ভ এর মধ্যে দিয়ে শেষ হয়েছে সপ্তমী পূজা। বেলা বাড়ার সাথে সাথে পূণ্যার্থীরা অঞ্জলি নেয়ার জন্য এখানকার পূজামন্ডপ গুলোতে ভিড় করতে থাকেন। সন্ধ্যায় আরতি ও রাতে ধুনোচি নাচে অংশ নেন সকলে।
আজ দিনের শুরুতে দুর্গাদেবীর মহাষ্টমাদি বিহিত পূজা। দুপুর ১টা ৫৪ মিনিটে ১০৮টি সদ্য ফোটা পদ্মফুল ও ১০৮টি প্রদীপ জালিয়ে সন্ধি পূজা করা হবে। সন্ধি অর্থ মিলন। তাই প্রশ্ন জাগতে পারে অষ্টমীর বিশেষ এই পূজাকে সন্ধি পূজা কেন বলা হয় ? অষ্টমী ও নবমী তিথির মিলনের মুহুর্তে এই পূজা হয়ে থাকে। আর তাই এই পূজাকে হিন্দু শাস্ত্রে সন্ধি পূজা বলা হয়। তিথি শেষ হওয়ার আগের ২৪ মিনিট এবং নবমী তিথি শুরুর পরের ২৪ মিনিট মোট ৪৮ মিনিটের মধ্যে এই পূজা সম্পন্ন করতে হয়। হিন্দু শাস্ত্র মতে, এই সময় দেবী দুর্গা চন্ডিরূপ ধারণ করে অসুর রাজাকে বধ করেছিলেন। তাই এ সময় দেবী জাগ্রত হন। দেবীকে ১শ ৮টি নীলপদ্ম নিবেদন করে আরাধনা করা হয়। এতে দেবী প্রসন্ন হন। এই পূজা চলাকালে মন্ত্র জপ করলে মা দুর্গা মনের সব আশা পূরণ করেন। বিপদ আপদ ও রোগ ব্যাধি দূর করে দেন। এক মনে মায়ের আরাধনা করলে মায়ের ছেলেমেয়েরাও খুশী হন। তাই মা লক্ষ্মীর আশীর্বাদ পাওয়া যায়। মা লক্ষ্মী খুশি হলে সংসারে সুখ শান্তি বিরাজ করে, অভাব দূর হয়। অষ্টমীর পূজার সাথে  নিরামিষ ভোগতো আছেই। সন্ধি পূজা শেষে মঙ্গলারতি।   
গতকাল সপ্তমী পূজাতে  মিশিগান শিব মন্দির, মিশিগান কালিবাড়ি, ডেট্রয়েট দুর্গা টেম্পলে মণ্ডপে মণ্ডপে ভক্তদের আরাধনায় জমে উঠেছে দুর্গোৎসব। দুপুর থেকেই পূজামণ্ডপগুলোয় দর্শনার্থীদের ভিড় বাড়তে থাকে। বাহারি পোশাকে আর অঙ্গসজ্জায় নিজেদের সাজিয়ে রাঙিয়ে উৎসব-আনন্দে মেতে উঠেছে শিশু-কিশোর-কিশোরী ও তরুণ-তরুণীরা। এছাড়া পূজামণ্ডপ গুলো ঝলমলে আলোকসজ্জায় রঙিন হয়ে ওঠে। মন্ডপে মন্ডপে শোনা যাচ্ছে উলুধ্বনি, শঙ্খ, কাঁসর ও ঢাকের বাদ্য। 


এ জাতীয় আরো খবর