মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৭, ২০২১

ডেট্রয়েট প্রিপ্রেস ম্যারাথনে প্রবাসী বাংলাদেশি আবু জুবের

  • নিজস্ব প্রতিবেদক :
image

ডেট্রয়েট, ২১ অক্টোবর :  প্রিপ্রেস ম্যারাথন ২০২১-এ অংশ নিলেন হ্যামট্রাম্যাক সিটিতে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশি আবু জুবের। ১২ হাজার ৮৪৯ জন প্রতিযোগীর সঙ্গে লাল-সবুজের পতাকা মাথায় বেধে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেন তিনি। 

কোভিড -১৯ মহামারীর জন্য সীমান্তে বিধিনিষেধের কারণে ডেট্রয়েট ম্যারাথন এই বছর কানাডায় প্রবেশ করতে পারেনি। আবু জুবের ফুল ম্যারাথন ক্যাটাগরিতে অংশগ্রহণ করেন। এই দৌড় প্রতিযোগিতায়  ২৬. ২ মাইল পথ সফলতার সাথে শেষ করেন। এর আগে ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত ফুল ম্যারাথন দৌড়ে অংশগ্রহন করেও সফলতার সাথে দৌড় সম্পন্ন করেন তিনি।
ডেট্রয়েটের ডাউন টাউনে “ডেট্রয়েট প্রিপ্রেস ২০২১” অনুষ্ঠিত হয়। এ প্রতিযোগিতাটি বেল আইল থেকে শুরু হয়ে রিভারওয়াকে শেষ হয়। প্রতিযোগিতায় ১২ হাজার ৮৪৯  জন দৌড়বিদকে বাছাই করা হয়। এবং অংশগ্রহণকারীদের বয়স ১৬ বছরের বেশি ছিল।
ম্যারাথনের শুরু থেকে শেষ অব্দি লাখো প্রাণের ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা মাথায় বেধে দেশকে ভালোবাসা আর সম্মানে সিক্ত করেছেন ৪৭ বছর বয়সের  তরুণ ক্রীড়া সংগঠক আবু জুবের। তার স্বপ্ন ছিল একটাই- ডেট্রয়েট প্রিপ্রেস ম্যারাথনে বাংলাদেশের মানচিত্র বুকে নিয়ে দৌড়ে চলা।
বিশ্বব্যাপী ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতা ক্রমেই জনপ্রিয় উঠছে। স্থিতি সরাসরি মৃত্যু না ঘটালেও যন্ত্রনির্ভর আমাদের দৈনন্দিন স্থবির জীবন চর্চা আমাদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য প্রধান হুমকি। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে একটিভ লিভিং বা সচল জীবনযাত্রার বিকল্প নেই। আর তাই তো প্রবাদে আছে, গতিই জীবন, স্থিতিই মরণ।
এ প্রসঙ্গে  তরুণ ক্রীড়া সংগঠক আবু জুবের বলেন, মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্য ভালো রাখার অন্যতম উপায় হাঁটা অথবা দৌড়। অনেকেই এটাকে কষ্টের মনে করেন, কিন্তু শুরু করলে যে শারীরিক ও মানসিক প্রশান্তি আসে, তা উপলব্ধি করার পর কেউ এটা ছাড়তে পারবে না। ডাক্তার ও ওষুধ এড়াতে চাইলে নিয়মিত হাঁটা এবং দৌড়ানোর কোনো বিকল্প নেই। অল্পতেই অসুস্থ হওয়া, ঘন ঘন ডাক্তারের কাছে যাওয়ার প্রয়োজনীয়তা কমে আসবে, এবং যুবসমাজের মধ্যে বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়ার প্রবণতা কমে আসবে।


এ জাতীয় আরো খবর