মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৭, ২০২১

সেন্ট্রাল ফ্লোরিডায় বাংলাদেশ সমিতির পিকনিকে ছিল করোনা জয়ের উচ্ছাস

  • জুয়েল সাদাত :
image

ফ্লোরিডা, ৩ নভেম্বর : সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা বাংলাদেশ সমিতির উদ্যোগে বার্ষিক পিকনিক গত ৩১ অক্টোবর মেলবর্ন বীচের রোটারি পার্ক অব সানট্রিতেঅনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতি বছর বাংলাদেশ সমিতি বাস পিকনিক করে থাকে, এবারও ৪ টি বাস নিয়ে পিকনিকের পুরো প্রস্তুতি থাকলেও শেষ মুহূর্তে ভাড়া করা বাসের মালিক হার্ট এট্যাকে আক্রান্ত হওয়ায় শেষ মুহুর্তে সকল প্রবাসীরা নিজ নিজ গাড়ীতে রোটারি পার্কে সমবেত হন। সমিতির পক্ষ থেকে সকলকে অনাকাঙ্খিত এই বাস বিড়ম্বনার কথা বলা হলে, কোন প্রবাসীই এতে মনক্ষুন্ন হননি। সকাল সাড়ে দশটার মধ্য সকল প্রবাসী পার্কে চলে আসেন।    

সকাল ১১ টা থেকে বিকাল ৬ টা পর্যন্ত  চারশত প্রবাসী বাংলাদেশ সমিতির চ,ৎকার আয়োজনের পিকনিক উপভোগ করেন। প্রথমেই সকালের নাস্তা পরিবেশন করা হয়। নানা অয়োজনে বিভিন্ন বয়সি বাচ্চাদের ইভেন্ট, পুরুষ ও মহিলাদের ইভেন্ট ছিল আকর্ষনীয়। মহিলাদের বেলুন ফুটানো, পুরুষদের বস্তা দৌড়, যুগল জুটিদের ক্রিকেট এর ক্যাচ ধরা ছিল উপভোগ্য। শত শত প্রবাসীরা স্পোটর্স এর নানা ইভেন্ট উপভোগ করেন ৷ 
অসাধারণ মনোরম পরিবেশে বিরাট লেকের পাশে পার্কটি অনেকের নিকট ছিল খুবই আকর্ষনীয়। পেন্ডামিক পরবর্তি দীর্ঘ দুই বছর পর ওরলান্ডোর প্রথম ( সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা)  আউটডোর পিকনিকে দল মত নির্বিশেষে সকল প্রবাসী অংশগ্রহণ করেন।

সমিতির পিকনিকের সকালের নাস্তা, বাচ্চাদের জন্য্ পিৎজা পার্টি, আম ভর্তা, দুপুরের নানান পদের ভর্তা ভাজী সহ লাঞ্চ ও সন্ধ্যায় হাতে তৈরীর পিঠার বক্স সকলের দৃষ্টি কাড়ে ৷ আয়োজকদের নিঃস্বার্থ ভাবে কমিউনিটির সকলকে আনন্দ দানের আয়োজন বিশেষ প্রশংসা কুড়ায়। বাংলাদেশ সমিতির সভাপতি নুরুল ইসলাম,  সদস্য সচিব জাহেদ আলাম ও অন্যতম আয়োজক আনোয়ার হোসেন সেন্টু সমিতির সকল সদস্য ও উপস্থিত প্রবাসীদের ধন্যবাদ জানান। তারা উল্লেখ করেন মহিলা পুরুষ এক বিশাল টীম এই সুন্দর অনুষ্টানের পেছনে এক মাস কাজ করেছেন। এছাড়াও সকল প্রবাসী সমিতির প্রতি আস্থা রাখেন সেটা উল্লেখ করে আগামীতেও সহযোগীতার অনুরোধ জানান। বাসের বিড়ম্বনার কারণে কোন প্রবাসীদের নিকট কোন ডোনেশন কালেক্ট করা হয় নি। 
বিকাল সাড়ে পাঁচটায় বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের সকলকে পুরস্কুত করা হয়৷  পুরো অনুষ্টাননে রাফেল ড্র এর ব্যবস্থা ছিল না। তবে we Insurance এর হাসান মাহমুদ এর সৌজন্য একটি ফ্রি রাফেল ড্র ছিল, সেখানে সবাই অংশগ্রহণ করেন। সৌভাগ্যবান চারজনকে পুরস্কৃত করা হয়। পিকনিকে ছিল নামাজের ব্যবস্থা, মাঝে মাঝে স্থানীয় শিল্পী শফিকুল ইসলাম, স্বপন অধিকারী ও মোহাম্মদ চৌধুরী রানা সংগীত পরিবেশন করেন। রোটারি পার্কের সানট্রির আকর্ষনীয় লোকেশন ওরলান্ডোর সকল প্রবাসীদের মুগ্ধ করে। 
দীর্ঘ দুবছরের পেন্ডামিক পরবর্তী প্রথম বারের মত প্রবাসীদের সর্ববৃহৎ মিলনমেলাটা ছিল সকলের নিকট করোনা জয়ের আনন্দের খোরাক। 
পুরো সাতঘন্টা প্রবাসীরা বাংলাদেশ সমিতির এই পিকনিক উপভোগ করেন।


এ জাতীয় আরো খবর