মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৭, ২০২১

বিএসএফ-এর ক্ষমতা বৃদ্ধি : ক্ষোভ

  • সুপ্রভাত মিশিগান ডেস্ক :
image

কোচবিহার. (পশ্চিমবঙ্গ) ২৩ নভেম্বর : বিএসএফ-এর ক্ষমতা বৃদ্ধির পর ক্রমশ খারাপ হচ্ছে কোচবিহার। বিশেষ করে সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায়। কেন্দ্র সরকারের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্রমাগত ক্ষোভ প্রকাশ করে চলেছেন বিজেপি বিরোধী দলগুলোর পাশাপাশি মানবাধিকার সংগঠনের কর্মীরাও। তাঁদের মতে শুধু জমি আর প্রাণ নয় ঘটি-বাটি হারানোর উপক্রম হয়েছে তাঁদের। জমি-জায়গা, বাড়ি-ঘর ধ্বংস করে দিতে বলছে বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স।

এদিকে জানা গিয়েছে, দিনহাটা টু ব্লক কাঁটাতারের বেড়ার ওপারে যাঁরা বসবাস করেন তাঁদেরকে বিএসএফ জওয়ানরা সেখান থেকে বাড়ি ভেঙে ভারতের দিকে আসতে বলেছেন এবং সেটা খুব তাড়াতাড়ি। কালমাটি গ্রাম, বামন হাট টু জিপি, সুকারু কুঠি জিপির অধীনে পার্ট ওয়ান সেঁউতি, পার্ট-৩ ভোলানাথপুর থরাইখানা কাঁটাতার অঞ্চলের মানুষদের বিএসএফ খুব তাড়াতাড়ি বাড়ি ভেঙে বাইরে আসতে বলছে।
তুফানগঞ্জ ওয়ান ব্লক নাককাটি জিপি ধাদিয়াল শিয়াল পাড়া গ্রামের সীমান্তবাসী কাঁটাতার বন্দি কৃষকদের বাড়ি ভেঙে নিয়ে আসতে বলেছে বিএসএফ। বিএসএফ শর্ত দিয়েছে পুরনো বাড়ি ভেঙে না দিয়ে আসলে নতুন জয়াগায় প্রবেশ করা যাবে না। মেখলিগঞ্জ ব্লক জামালদা জিপি অধীনে ২০২ খাস বোস দ্বারিকামারি কাঁটাতার বন্দি গ্ৰামবাসীদের বাঁশবাগান সহ নানা গাছ বিএসএফ কেটে নিয়ে আসার হুকুম দিয়েছে।
কেন্দ্রের নতুন নির্দেশিকা অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গ, অসম ও পাঞ্জাব- পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সীমান্তে অবস্থিত ভারতের তিন রাজ্যে বিএসএফ এখন পুলিশের মতোই তল্লাশি চালাতে পারবে। গ্রেফতারও করতে পারবে। নিজেদের সীমান্তের ভেতরে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকায় বেআইনি সন্দেহে কোনও জিনিস আটকও করতে পারবে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, সম্প্রতি সীমান্তের ওপার থেকে ড্রোনের মাধ্যমে দেশে অস্ত্রশস্ত্র সরবরাহের চেষ্টা হয়েছে। সেই প্রেক্ষিতেই বেশি ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে সীমান্তরক্ষী বাহিনীকে। এর আগে নিজেদের সীমান্তের ভেতরে ১৫ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকায় বিএসএফ তল্লাশি চালাতে পারত। এখন ১৫ কিলোমিটার থেকে বাড়িয়ে ৫০ কিলোমিটার করা হয়েছে।
কিন্তু মানবাধিকার সংগঠনগুলির দাবি, কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের ফলে ক্ষতি হবে সাধারণ মানুষেরই। কারণ তাঁদের সঙ্গে বোঝাপড়ার অভিযোগে যত সংখ্যক মানুষের প্রাণ যায় তার ৮০ শতাংশই ভারতীয় নাগরিকের। বাকি ২০ শতাংশ বাংলাদেশের। গরু পাচার, অবৈধ অনুপ্রবেশ সংক্রান্ত নানা বিষয় নিয়ে এবার সীমান্তবাসী ভারতীয়দের দুর্দশাই আরও বাড়বে।
সূত্র : প্রথম কলকাতা


এ জাতীয় আরো খবর