বুধবার, জানুয়ারী ১৯, ২০২২

বছরের শুরুতেই ভারতে বৈষ্ণোদেবী মন্দিরে পদপিষ্ট হয়ে মৃত ১২

  • সুপ্রভাত মিশিগান ডেস্ক :
image

জম্মু, ১ জানুয়ারী : নতুন বছরের শুরুতেই দুযোর্গ নেমে এল ভারতের বুকে। মধ্য রাতে বৈষ্ণোদেবী মন্দিরে পদপিষ্ট হয়ে মারা গিয়েছেন ১২ জন ভক্ত, আহতের সংখ্যার অনেক। ২০২০ ও ২০২১ সাল ভয়াবহ অবস্থার মধ্যে দিয়ে কেটেছে আমাদের। করোনার জন্য জীবন থেকে ত্যাগ করতে হয়েছে অনেক কিছুই। এদিকে ২০২১-এর শেষ থেকেই ফের মাথা চাড়া দিয়েছে কোভিড-১৯ ভাইরাসের হানাদারি। তবুও নতুন বছরের প্রথম দিনেই আশার আলোয় বুক বেঁধে নতুন আলোর জন্য ভগবানের উদ্দেশে প্রার্থনা করতে জম্মুর বৈষ্ণোদেবী মাতার মন্দিরে ভিড় জমিয়েছিলেন ভক্তরা। কিন্তু তাঁদের প্রার্থনা যেন অভিশাপ হয়ে নেমে এল। নতুন বছরের শুরুতেই সেখানে ভক্তদের ভিড়ে পদপিষ্ট হয়ে মারা গিয়েছেন অন্তত ১২ জন। আর আহতের সংখ্যা অগুন্তি।

শনিবার ভোররাত থেকেই জম্মু বৈষ্ণোদেবী মাতার মন্দিরে পুজো দিতেই জমায়েত হয়েছিলেন বহু ভক্ত। আর তাঁদের উপস্থিতি এতটাই বেশি ছিল যে সৃষ্টি হয় বিশৃঙ্খল অবস্থা আর তাতেই ঘটে যায় চরম দুর্ঘটনা। ইতিমধ্যে আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আপাতত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বৈষ্ণোদেবী মন্দিরে প্রবেশ।জানা গিয়েছে, ত্রিকূট পর্বতের ওপর অবস্থিত এই মন্দিরের গর্ভগৃহের বাইরেই এই ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনার খবর পেয়েই মন্দিরে পৌঁছে যান কর্তৃপক্ষের সদস্যরা। সেখানে পৌঁছে গিয়েছে উদ্ধারকারী দলও। নতুন বছরের শুরুতেই রাত দুটো থেকেই মন্দিরে ভিড় জমতে শুরু হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে।
জম্মু ও কাশ্মীরের ডিজিপি দিলবাগ সিং জানিয়েছেন, রাত ২ টো ৪৫ মিনিট নাগাদ এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। মন্দিরের ৩ নম্বর গেটের কাছে ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানিয়েছেন তিনি।জম্মু ও কাশ্মীরের রিয়াসি জেলায় কাটরায় অবস্থিত এই বৈষ্ণোদেবী মাতার মন্দির দেশের অন্যতন জনপ্রিয় তীর্থস্থান। প্রতি বছর বহু পূণ্যার্থীর সমাগম হয় এই মন্দিরে। বছরের শুরুতে সংখ্যাটা আরও বেড়ে যায়। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী মৃতের সংখ্যা ১২ হলেও এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অনেকেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন।
এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি ট্যুইটে শোকপ্রকাশ করে লিখেছেন ‘মৃতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই। আহতরা যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন।’ এই বিষয়ে জম্মু ও কাশ্মীরের লেফট্যানেন্ট গভর্নরের সঙ্গে কথা বলেছেন বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন মৃতদের পরিবার পিছু ২ লক্ষ টাকা ও আহতদের পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।পাশাপাশি জম্মু ও কাশ্মীর সরকারের পক্ষ থেকেও মৃতদের পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে আহতদের দেওয়া হবে ২ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ। ঘটনার উচ্চপর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন অমিত শাহ থেকে রাহুল গান্ধী সব বিশিষ্ট রাজনৈতিক নেতারা।
সূত্র : প্রথম কলকাতা


এ জাতীয় আরো খবর