বুধবার, মে ১৮, ২০২২

ওমিক্রনেই কি শেষের ইঙ্গিত! নাকি আসতে চলেছে আরও ভয়ঙ্কর দিন?

  • সুপ্রভাত মিশিগান ডেস্ক :
image

কলকাতা, ১৮ জানুয়ারী : সার্স-কোভ-২-এর নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংক্রমণক্ষমতা আগের প্রজাতিগুলোর তুলনায় অনেকটা বেশি। ইতিমধ্যেই নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। লাগাতর বেড়ে চলেছে সংক্রমিতের সংখ্যা। ফলে বাড়ছে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যাও। বিশেষজ্ঞরাও ওমিক্রনের এই বাড়-বাড়ন্ত নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন। ওমিক্রনের হানাদারির পর মহামারি পরিস্থিতি কোন দিকে যেতে পারে, তা নিয়ে নানা কথা বলছেন বিজ্ঞানী ও বিশেষজ্ঞরা। কেউ বলছেন, রূপান্তরিত নতুন আরও ভ্যারিয়েন্ট আসতে পারে। আবার কেউ বলছেন, মহামারির শেষ দিকে এসে বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে ওমিক্রন।
বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের মহামারি বিশেষজ্ঞ লিওনার্দো মার্তিনেজ বলেছেন, ‘ওমিক্রন প্রজাতির সংক্রমণ যেভাবে সারা বিশ্বে হচ্ছে তাতে ধারণা করা হচ্ছে, এর আরও নতুন রূপান্তর হতে পারে। তবে এই রূপান্তর কখন, কীভাবে হতে পারে সে বিষয়ে অনুমান করা কঠিন। ভবিষ্যতে রূপান্তরিত এই ধরনগুলোর সংক্রমণ মৃদু হবে কি না, সেটাও নিশ্চিতভাবে বলা কঠিন।’ এদিকে ব্রিটেনের গবেষকদের অনুমান, গ্রীষ্মের শুরুতে কোভিড-১৯ ভাইরাসের সংক্রমণ আরও বাড়তে পারে। ওমিক্রন যে ভাবে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে, তাতে যে কোনও কিছু ঘটতে পারে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা বলছেন, এরপর মহামারি দুর্বল হতে পারে। আবার দ্রুত আরও নতুন ধরনের সংক্রমণও ছড়িয়ে পড়তে পারে।
প্রথমে ভাবা হয়েছিল, কোভিড-১৯-এর নতুন প্রজাতি ওমিক্রন সংক্রমিতদের অবস্থা ততটা গুরুতর হবে না। তবে বিজ্ঞানীরা বলছেন, মহামারির শেষ পর্যায়ে এসে আরও বিপজ্জনক ধরনের সংক্রমণ হতে পারে। জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্রমণ বিশেষজ্ঞ স্টুয়ার্ট ক্যাম্পবেল রে বলেন, ‘অনেকের ধারণা, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ছে। তবে এমনটা মনে করার খুব বেশি কারণ নেই। আমার মনে হয় না সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাসটি কম প্রাণঘাতী হবে, এমনটা ভাবার খুব বেশি সুযোগ আছে।’ দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ব্রিটেনের সায়েন্টিফিক অ্যাডাইজরি গ্রুপ ফর ইমার্জেন্সিস বলছে, গরমের শুরুতে ওমিক্রন প্রজাতি ফের মাথা চাড়া দিতে পারে। কারণ, এ সময় মানুষ সামাজিক কর্মকাণ্ড বেড়ে যাবে। এ ছাড়া এখন ওমিক্রনে সংক্রমিত হয়ে যাঁদের প্রতিরোধক্ষমতা তৈরি হয়েছে, তা আবার ওই সময় কমে যাবে।
বিশেষজ্ঞদের ধারণা অনুসারে, অমিক্রন ধরনের সংক্রমণের পর কী হতে পারে এ রকম পাঁচটি আভাস এখানে দেওয়া হল:
১. ওমিক্রন দ্বারা একাধিকবার সংক্রমণ হতে পারে। ডেল্টা বা করোনার অন্য ধরনের ক্ষেত্রেও একাধিকবার সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি আছে।
২. প্রাথমিকভাবে ওমিক্রন কম প্রাণঘাতী বলে মনে হলেও পরবর্তী সময় এটি রূপ বদলাতে পারে। করোনা ভাইরাস হয়তো সর্দিজ্বরের মতো মৃদু হয়ে উঠবে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এটি কম প্রাণঘাতী হয়ে উঠবে।
৩. ওমিক্রন সংক্রমিত ব্যক্তিদের মধ্যে হালকা উপসর্গ দেখা যায়। তবে খুব এই ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ ক্ষমতা খুবই মারাত্মক।
৪. সার্স-কোভ-২-এর এই নতুন ভ্যারিয়েন্ট পশুপাখির মধ্যেও ছড়িয়ে পড়তে পারে। পশুপাখি থেকে এটি আবার নতুন রূপে মানুষের মধ্যে সংক্রমিত হতে পারে।
৫. ওমিক্রন ডেল্টার সঙ্গে মিলে নতুন ধরন তৈরি করতে পারে। নতুন সেই ধরনের মধ্যে ডেল্টা ও ওমিক্রন দুটোরই বৈশিষ্ট্য থাকতে পারে।
সূত্র : প্রথম কলকাতা


এ জাতীয় আরো খবর