সোমবার, জুন ২৭, ২০২২

মোটরসাইকেল নিষিদ্ধের প্রস্তাবকারীদের মানসিক চিকিৎসা জরুরী : নতুনধারা

  • নিজস্ব প্রতিবেদক :
image

ঢাকা, ২০ জুন : নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবি দাবি করেছে- মহাসড়কে মোটরসাইকেল নিষিদ্ধের প্রস্তাবকারীদের মানসিক চিকিৎসা জরুরী; তাদেরকে দায়িত্ব থেকে অব্যহতি দিয়ে অনবিলম্বে চিকিৎসা না করালে এরা দেশের জন্য আরো ক্ষতিকর সিদ্ধান্তের প্রস্তাব দিতে পারে। ২০ জুন প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ধারার চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী, প্রেসিডিয়াম মেম্বার রাশেদা চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা কৃষকবন্ধু আবদুল মান্নান আজাদ, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব নিপুন মিস্ত্রী, সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াজেদ রানা, সদস্য শেখ লিজা প্রমুখ উপরোক্ত কথা বলেন।

নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী বিবৃতিতে আরো বলেন, বিশ্বের সকল দেশে মোটর সাইকেল একটি সহজ যোগাযোগ বাহন; সেই বাহনকে নিষিদ্ধ করার প্রস্তাব শুধু মানসিক বিকারগ্রস্থতারই প্রমাণ নয়; এর দ্বারা এটাও প্রমাণ করে যে, বিআরটিএর চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদারসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তর-উপদপ্তরের নিয়োজিতরা দেশের মানুষকে কষ্টে ফেলতে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের উদ্ভট সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে। যদি দেশে সড়কপথ দুর্ঘটনা কমাতে চান, নিয়ম-শৃঙ্খলা-আইন প্রয়োগে কঠোর হোন, তাহলেই তো সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে, তা না করে সেই পাগলের মত ‘মাথা ব্যথা করেছে বলে মাথাটাই কেটে ফেলা’র সিদ্ধান্ত প্রমাণ করে- এরা কেউ-ই নীতির সাথে দায়িত্ব পালন করছে না। এই নীতিহীনদের সুপারিশ সরকার আমলে তো নেবেই না, আশা করবো এই সুপারিশ করার অপরাধে, দুর্নীতিসহ অন্যান্য অপকর্মের তদন্ত করা হবে, যাতে এদের রহস্যজনক সুপারিশের কারণের পাশাপাশি জনগন কোটি কোটি টাকা লোপাটের ইতিবৃত্ত জানতে পারে। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ অনতিবিলম্বে মহাসড়কে মোটরসাইকেল চালানোর সময় নিয়ম মেনে সচেতনতার সাথে-সতর্কতার সাথে থাকার জন্য রাইডারদের প্রতিও আহবান জানান। 


এ জাতীয় আরো খবর