নানা আয়োজনে মিশিগান শিব মন্দিরে হ্যাপি হলিডে উদযাপন

  • তোফায়েল রেজা সোহেল :
  • ২০২১-১২-২৬ ২২:১০:৫৭
image

ওয়ারেন, ২৬ ডিসেম্বর : নানা আয়োজনে গতকাল  শনিবার রাতে নগরীর শিব মন্দির টেম্পল অব জয়ে হ্যাপি হলিডে পালন করা হয়েছে। বছর শেষে হ্যাপি হলিডে-র ছুটিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সমাগমে এখানে জমেছিলো বিশাল মিলনমেলা। 


হ্যাপি হলিডের আয়োজনে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ক্রিসমাসের রঙে রঙিন করেছে নিজেদের। সকলের পরনে ছিল লাল সবুজ পোষাক। মন্দিরের হলরুম ও কারিডোরে  ফটো সেশনের মাধ্যমে শুরু হয় এই  পার্টি। এরপর একে নাচ, গান,  ধামাইল পরিবেশিত হয়। সঙ্গীত পরিবেশন করেন প্রতীক দাস, অমৃতা মৃধা, প্রজিতা বিশ্বাস, প্রমিতা বিশ্বাস, পুষ্পিতা বিশ্বাস, শ্রুতি হাওলাদার, পৃথা দেব, অপূর্ব কান্তি চৌধুরী, কাবেরি দেব, অতুল দস্তিদার, প্রতিভা কপালি, বাবুল পাল, স্বদেশ রঞ্জন সরকার। নৃত্য পরিবেশন করেন রিয়া ধর, প্রিয়া ধর,  মনি ধর।


অনুষ্ঠানের বিভিন্ন পর্যায়ে বক্তব্য রাখেন শিব মন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা বিশিষ্ট চিকিৎসক এবং স্বনামধন্য দার্শনিক ড. দেবাশীষ মৃধা, লুজিয়ানা স্টেট ইউনিভার্সিটির প্রফেসর ভব সরকার,  লুপা সরকার, ইন্ডিয়ানাপোলিস সিটির প্যাথলজিস্ট  ডা. স্যামুয়েল  ফ্রঙ্কস, ইন্ডিয়ানাপোলিস সিটির  ইন্ডিয়ানা ইউনিভার্সিটির মনোরোগ বিশেষজ্ঞ  ডা. জয়তী সরকার, রতন হাওলাদার, পুর্নেন্দু চক্রবর্তী অপু, অমূল্য চৌধুরী, অজিত দাশ, রাখি রঞ্জন রায়, দেবাশীষ দাশ প্রমুখ।  


অনুষ্ঠানে মন্দিরের প্রিস্ট পুর্নেন্দু চক্রবর্তী অপু ও তার স্ত্রী চন্দনা বানার্জী শিব মন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা ড. দেবাশীষ মৃধা ও তাঁর সহধর্মিনী চিনু মৃধা এবং মন্দিরের কো-অর্ডিনেটর  রতন হাওলাদার এবং তাঁর স্ত্রী হেপি হাওলাদারকে উপহার সামগ্রী প্রদান করেন। 


অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষণ হিসেবে সান্তাক্লজ আসেন নানা উপহার ও চমক নিয়ে। তিনি শিশুদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ের পাশাপাশি উপহার বিতরণ করেন। শিশুদের পাশাপাশি বড়রাও সান্তাক্লচের সাথে সেলফি কিংবা ছবি তুলেছেন।  অনুষ্ঠানে প্রীতিভোজ ও  কেক কাটার আনন্দে সামিল হয়েছেন সকলেই। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন চিনু মৃধা, সৌরভ  চৌধুরী এবং রাজর্ষি গৌরব চৌধুরী।


হ্যাপি হলিডে পার্টিকে ঘিরে মন্দিরের করিডোর ও হলরুম সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে। ক্রিসমাস ট্রি আর রঙিন বাতি দিয়ে সাজানো হয়েছে পুরো আয়োজন। বসানো হয়েছে সান্তা ক্লজের বিশাল প্রতিকৃতি। 


এদিকে বড়দিনকে ঘিরে মাসব্যাপী আয়োজনে মিশিগানের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, বাসা-বাড়ির ভেতর বাইর নানা রকমের বাতি দিয়ে সাজানো হয়েছে। রাঙিয়ে তোলা হয়েছে ক্রিসমাস ট্রি। শপিং মলগুলিতে ছিল উপচে পড়া ভিড়। সত্যিকার অর্থে দেশে ঈদ-পূজার আনন্দ প্রবাসে এই 'ক্রিসমাস ডে'র আনন্দের সমার্থ হয়ে উঠে। বড়দিন এবং 'নিউ ইয়ার' উপলক্ষে অনেক প্রতিষ্ঠানে এখন ছুটি চলছে। তাই অনেকেই ক্রিসমাসের ছুটিতে এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। উৎসবের সেই কাঙ্খিত দিনটিতে গতকাল শনিবার অনেক প্রবাসী বাংলাদেশির বাড়িতে আনন্দ-উদ্দীপনা আর বর্ণিল আয়োজনে হয়েছে ক্রিসমাস পার্টি । খাওয়া দাওয়া ছবি তোলাসহ নানা কিছু নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন তারা। অনেক রাত পর্যন্ত চলে জমজমাট পার্টি ।